মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি অমিতাভ লালা



পুবের কলম প্রতিবেদক­‌: করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি অমিতাভ লালা। গত মাস থেকে তিনি বাইবাসের একটি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। কিন্তু, ক্রমেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। অবশেষে সোমবার রাতে তাঁর মৃতু্য হয়। মৃত্য‍ুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তাঁর মৃত্য‍ুতে এদিন শোকের ছায়া নেমে আসে আইনজীবী মহলে। সাড়ে তিনটের পর আদালত ছুটি ঘোষণা করা হয়। 


পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ফলে তাঁর শরীরে প্লাজমার ঘাটতি হয়েছিল। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্লাজমার জন্য আবেদনও জানিয়েছিলেন। কিন্তু, তা পাওয়ার আগেই তিনি মারা যান। পরিবারের সঙ্গে তিনি যোধপুর পার্কের বাড়িতেই থাকতেন। কলকাতা হাইকোর্টে আইনজীবী হিসেবে কেরিয়ার শুরু করেন। এরপর কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি হিসেবে তাঁকে নিয়োগ শুরু করা হয়। পরে এলাহাবাদ হাইকোর্টে তাঁকে বদলি করা হয় এবং সেখানে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

 

রাস্তা আটকে বনধ নিয়ে তিনিই প্রথম সরব হয়েছিলেন। এর প্রতিবাদে ২০০৪ সালে তিনি স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করেছিলেন। শুধু তাই নয় একাধিক গুরুত্ব মামলার রায়দানও করেছিলেন। শুধু তাই নয়, ১৯৮২ সালে বিজন সেতুর ওপর আনন্দমার্গির ১৫ জন সন্ন্যাসিকে হত্যা করা হয়েছিল। সেই সময়কার অন্যতম্য চাঞ্চল্যকর ঘটনা ছিল আনন্দমার্গী হত্যা। পরবর্তী কালে রাজ্য সরকার অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি অমিতাভ লালার নেতৃত্বে একটি কমিশন গঠন করেন। যার নাম লালা কমিশন। ২০১৮ সালে সেই ঘটনায় তদন্ত শেষ করে চূড়ান্ত রিপোর্ট জমা দেয় লালা কমিশন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only