সোমবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২০

সৌমিত্র প্রয়ানে শান্তি নিকেতন হারালো তার স্বজন



দেবশ্রী মজুমদার, শান্তি নিকেতন:  শান্তি নিকেতন ও সোনাঝুরির মন ভালো নেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মহা প্রয়াণে। চলচ্চিত্র মাধ্যম হতে পারে। তবে যোগসূত্র অবশ্যই রবীন্দ্রনাথ। শান্তিনিকেতন, মন্দির সব মিলিয়ে রবীন্দ্রনাথের গন্ধে ভরপুর প্রোডাকশন হাউজের পোস্ত। এই ছায়া ছবির নাম অনেকেরই জানা। 


শিল্পী দিপালী ভট্টাচার্যের বাড়িতে হয়েছিল সুটিং। পোস্তর দাদু দিদিমার বাড়ির সেটিং ছিল সেটাই। সেখানেই দাদু সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও দিদা লিলি চক্রবর্তীর বাড়িতে অভিনয় করেন বিশ্বভারতীর অধ্যাপিকা দেবলীনা দালাল মুখোপাধ্যায়। তিনি আবার বাচিক শিল্পীও। তিনি পরিচারিকার অভিনয়ে একটানা নয় দিন কাটিয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে। তাঁর কথায়, অষ্টম দিন পর্যন্ত সম্ভ্রমে কোন কথা বলতে পারিনি। তিনি জানান,  নবম দিন তাঁর সঙ্গে ছবি তুলতে চান। তার উত্তরে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় বলেন, তুমি তো ছবিতেই আছো। আবার ছবি কেন? যাহোক শেষ পর্যন্ত ছবি তুলতে দেন। সেটা আজ তার কাছে এক অমূল্য স্মৃতি। একইভাবে, 'বেলা শুরু' সিনেমায় সোনাঝুরিতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে অভিনয় করেন। বেলা শুরু এখনও রিলিজ হয়নি। 


অন্যদিকে, বিশ্ব ভারতীর কলাভবনের নন্দনের প্রাক্তন কোঅর্ডিনেটর অধ্যাপক সুশোভন অধিকারী বলেন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ি কৃষ্ণ নগর সূত্রে তিনি আমার মামার বন্ধু ছিলেন। আর শান্তি নিকেতনের সাথে তাঁর নিবিড় যোগ। আর এর কেন্দ্রে ছিল রবীন্দ্রনাথ। শান্তি নিকেতনে কবিতা উৎসবে সৌমিত্র বাবু বহুবার এসেছেন। বহুমুখী প্রতিভাধর মানুষ ছিলেন তিনি। তাঁর মুল্যায়নে আরও প্রয়োজন আছে বলে মনে করি। এক কথায় শান্তি নিকেতন আজ সুজন হারালো, হারালো তার স্বজন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only