শুক্রবার, ২০ নভেম্বর, ২০২০

ভুটানের উপগ্রহ মহাকাশে পাঠাবে ভারত

 


রুবাইয়া জুঁই, ২০ নভেম্বর:  দ্বিতীয় দফায় 'রুপে কার্ড' উদ্বোধন করে উচ্ছসিত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুক্রবার এই উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং। এই কার্ডটি উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন ভুটানের ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের জারি করা এই রুপে কার্ডগুলির মাধ্যমে বিশেষ সুযোগ সুবিধা পাবেন ভারতে আসা ভুটানের পর্যটক ব্যবসায়ীরা। তিনি আরও বলেন ব্যবসা বাণিজ্য সংক্রান্ত যাবতীয় লেনদেন ক্রয় বিক্রয়কে আরও অনেকটাই সহজ করে তুলবে এই রুপে কার্ড। তিনি জানান, ইতিমধ্যেই রুপে কার্ডের মাধ্যমে ১১ হাজার সফল লেনদেন হয়েছে দুটি দেশের মধ্যে। করোনা মহামারির জন্য প্রায় থমকে ছিল দুই দেশের অর্থনীতি নাহলে লেনদেনের পরিমাণ আরও বাড়ানো যেতো বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। লেনদেনকে আরও সহজ করতেই রুপে কার্ডের প্রচলন করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।এছাড়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান আগামী বছরই ইসরোর সাহায্যে  ভূটানের উপগ্রহকে মহাকাশে পাঠানো হবে। সেই প্রকল্পের কাজ চলছে দ্রুত গতিতে। চলতি বছর ডিসেম্বরেই ভূটানের চার স্পেস ইঞ্জিনিয়ার ভারতে আসবেন। তাঁরা খতিয়ে দেখবেন ইসরোর কাজ। ভূটানের এই চার স্পেস ইঞ্জিনিয়ারকে স্বাগত জানিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন ভারত-ভূটান দুটি দেশই শান্তি প্রক্রিয়া বজায় রাখতে কার্যকরী অবস্থান গ্রহণ করেছে।দুটি দেশ নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক বাড়ানোর ক্ষেত্রেও জোর দিয়েছে। উভয় দেশই প্রতিষ্ঠানগুলিকে সাহায্য করার বিষয়ে আলোচনা করেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। রুপে কার্ড উদ্বোধনের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তৃতীয় আন্তর্জাতিক গেটওয়েতে বিএসএনএল-এর সঙ্গে ভুটানের চুক্তিকেও স্বাগত জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, ভারতের সঙ্গে ভুটানের সম্পর্ক বরাবর নজিরবিহীন ছিল।এই দুটি দেশ একে অপরের সুখ-দুঃখের অংশীদার সেই ১৯৬৮ সাল থেকে।ভুটানের  সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ককে আরও মজবুত করে তুলতে করোনা টিকার তৃতীয় বা চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল ভুটানেও করা হবে বলে কিছুদিন আগেই জানায় ভারত সরকার। ভারতের রাষ্ট্রদূত রুচিরা কাম্বুজ পোর্টেবল ডিজিটাল এক্স-রে মেশিন তুলেও দেয় ভুটানের বিদেশমন্ত্রী তান্ডি দর্জির হাতে। পাশাপাশি তুলে দেওয়া হয় অ্যান্টি-ভাইরাল ওষুধ এবং কোভিট টেস্টের উপকরণও। এর আগেও ভুটানের পাশে দাঁড়িয়েছিল ভারত।  কার্গো বিমানে করে প্যারাসিটামল, সেট্রিজিন, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন, পিপিই, এন ৯৫ মাস্ক চিকিৎসার অন্যান্য সরঞ্জাম পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল ভুটানে।অন্যদিকে করোনা টিকার ট্রায়ালের বিষয়ে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার এই অনুষ্ঠানে ভারত সরকারের এই সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানায়। করোনা মহামারীর মধ্যেও ভারত বন্ধু দেশের মতই আমাদের পাশে থেকেছেএই করোনা টিকার ট্রায়ালের বিষয়ে ইতিমধ্যেই ভুটানের সঙ্গে সমস্ত আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়াও কিছুদিন আগেও ভুটানের সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করতে অনেকগুলো পদক্ষেপ গ্রহণ করে ভারত

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only