রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০

ইহুদিদের ভোট ভালই পেয়েছেন বাইডেন



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ ট্রাম্পের ঘোষিত নীতি ছিল ‘ইসরাইল-বান্ধব’। তা সত্ত্বেও ইহুদিদের ভালোই ভোট টেনেছেন জো বিডেন। বিশেষজ্ঞদের মতে ট্রাম্প গত ৪ বছরে ইসরাইল ও ইহুদিদের এতকিছু করেছেন যা আর কোনও মার্কিন প্রেসিডেন্ট করেননি। ট্রাম্প একবার বলেছিলেন আমি ইহুদিদের জন্য যা করেছি তাতে আমি যদি ইসরাইলের ভোটে দাঁড়াই তাহলে নেতানিয়াহুকে হারিয়ে সে দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়ে যাব। এরপরেও বিডেনকে ভালোই ভোট দিয়েছেন আমেরিকায় বসবাসরত মার্কিন-ইহুদিরা। একটা সমীক্ষক সংস্থা বলেছে ইহুদিদের অন্তত ৭০ শতাংশই বিডেনকে ভোট দিয়েছেন। এ খবর শুনে মর্মাহত হয়েছেন ট্রাম্প ও নেতানিয়াহু দুজনেই। কারণ নেতানিয়াহুর হাত ধরে ট্রাম্প তাঁর ক্ষমতার বাইরে গিয়েও ইসরাইলকে পাইয়ে দিয়েছেন জেরুসালেম থেকে গোলান মালভূমি পর্যন্ত। তাছাড়াও আরব দেশগুলোর সঙ্গে ইসরাইলকে মিলিয়ে দিয়ে বিতর্কিত চুক্তিও করিয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প। তবুও ইহুদিদের মন জয় করতে পারেননি ডন। উল্লেখ্য,মার্কিন-ইহুদিরা বরাবরই ডেমোক্র্যাট পার্টির অনুগত। তবে এবার তার ব্যতিক্রম হয়েছে। যার অন্যতম কারণ হল বিডেনের ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কমলা হ্যারিসের স্বামী একজন ইহুদি। অবশ্য ট্রাম্পের জামাতাও ইহুদি। এদিকে ইহুদিরা বিডেনকে ঢালাও ভোট দেওয়ায় এক ইসরাইলি মন্ত্রী টুইটে তোপ দেগে লিখেছেন যে মার্কিন-ইহুদিদের কোনও কৃতজ্ঞতা নেই। তাঁদের উচিত ছিল ট্রাম্পকে একচেটিয়া ভোট দেওয়া। তা না করে বিডেনকে ভোট দেওয়ার অর্থ হল বিশ্বাসঘাতকতা করা। দুদিন আগে আরেক ইসরাইলি মন্ত্রী বলেছেন বিডেন জিতলে তিনি ইরান-চুক্তিতে ফিরবেন। তাহলে ইরান পরমাণু শক্তিধর দেশে পরিণত হবে এবং স্বভাবতই ইসরাইলের সঙ্গে ইরানের যুদ্ধ অবশ্যম্ভাবী হয়ে পড়বে।    


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only