রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০২০

কলকাতার আকাশে ব্লু মুন ? মিস করে থাকলে এই খবর আপনার জন্য



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ শনিবার রাতের আকাশে ‘ব্লু মুন’-এর দেখা মিলল। পূর্ণিমার রাতে এই নতুন ধরনের চাঁদের দেখা মিলবে। এই সম্পর্কে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা কোনও মাসে যদি দু’বার ফুল মুন অর্থাৎ পূর্ণিমা পড়ে তবে দ্বিতীয়বা শেষ পূর্ণিমাতে দেখা যায় ব্লু মুনের। অক্টোবর মাসের ১ তারিখ ছিল পূর্ণিমা। ৩১ অক্টোবর ফের পূর্ণিমা পড়ে। প্রতি মাসে একটি পূর্ণিমা আর একটি অমাবস্যা হয়। ২৯ দিন ১২ ঘণ্টা ৪৪ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড পূর্ণিমা হয় বলে কলকাতার বিড়লা ইন্সটিটিউটের বিশেষজ্ঞরা জানান। এই পূর্ণিমার চাঁদের নাম ব্লু মুন হলেও এই চাঁদ কিন্তু পুরোপুরি ব্লু হয় না।

বিশেষজ্ঞদের কথায় ১৮৮৩ সালে ইন্দোনেশিয়ান আগ্নেয়গিরি ক্রাকাতোয়ায় ভয়াবহ উদ্গীরণ হয়। কালো চাই বাতাসে জমা হওয়ায় ওই সময় চাঁদটিকে নীল রঙের দেখা গিয়েছিল। সেখান থেকেই ব্লু মুনের নামকরণ হয়েছিল। ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি ব্লু মুন দেখা গিয়েছিল। ফের ২০২০ সালের ৩১ অক্টোবর সেই সুযোগ মিলেছে। পুনরায় ব্লু মুন হবে আগামী ২০২১ সালের ২৭ আগস্ট। এই প্রসঙ্গে এমপি বিড়লা তারামণ্ডলের ডিরেক্টর ড. দেবীপ্রসাদ দুয়ারি বলেন কয়েক বছর অন্তর ব্লু মুন হয়। তবে চাঁদের রং পুরোপুরি ব্লু বা নীল হয় না। 

 স সব সময় ব্লু মুন দেখা যায় না তাই বিশেষজ্ঞরা এর নাম দিয়েছেন ‘ওয়ান্স ইন এ ব্লু মুন’। সাধারণত এক মাসে দু’বার পূর্ণিমা হলে দ্বিতীয় পূর্ণিমার দিনের চাঁদকে কিছুটা নীল দেখায়।

 এদিকে মহাকাশের বিড়ল ঘটনার সাক্ষী যাতে সবাই থাকতে পারে তার জন্য এবার অনলাইনে নীল চাঁদ দেূানোর ব্যবস্থা করে বিড়লা ইন্ডাস্টিয়াল অ্যান্ড টেকনোলজিক্যাল মিউজিয়াম। প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব উিটব চ্যানেলে পুরো ঘটনাটিও দেূানো হয়। সন্ধ্যে সাতটা থেকে আটটা পর্যন্ত লাইভ চ্যাটের ব্যবস্থাও করা হয়। লাইভ চ্যাটের মাধ্যমে বিশেষজ্ঞরা ব্লু মুন সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবও দেন।  


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only