শুক্রবার, ২০ নভেম্বর, ২০২০

বিরজু মহারাজ সহ ২৭ শিল্পীকে বাড়ি ছাড়ার নোটিশ দিল কেন্দ্র

 


পুবের কলম প্রতিবেদকঃ দেশের প্রবাদপ্রতিম শিল্পীদের রাজধানী শহরে থাকার জন্য খুবই সামান্য মাসিক ভাড়ায় বাড়ি পেয়েছিলেন। কেন্দ্রীয় সরকারের ‘এমিনেন্ট আর্টিস্ট’-এর কোটায় ‘লাইসেন্স ফি’ বাড়িগুলো এখন ছেড়ে দেওয়ার নোটিশ পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে।

নোটিশে স্পষ্ট লেখা ‘এক্সটেনশন সম্ভব নয়’ তাই বাড়ি ছাড়ুন। হঠাৎ এরকম নোটিশ পাওয়ায় রীতিমতো বিপাকে পড়েছেন ৮৩ বছরের প্রবাদপ্রতিম কথক শিল্পী বিরজু মহারাজ। তিনি একা নন, এইভাবেই দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসা বাড়ি ছাড়ার নোটিশ পেয়েছেন আরও ২৬ জন শিল্পী। কেন্দ্রের পাঠানো ওই নোটিশের তালিকায় রয়েছেন,চিত্রশিল্পী যতীন দাস, সন্তুর বাদক ভজন সোপারি, মোহিনী অট্টম শিল্পী ভারতী শিবাজির মতো খ্যাতনামা শিল্পীদের নাম। নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বাড়ি ছেড়ে দিতে হবে। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় নগরোন্নয়ন মন্ত্রকের তরফ থেকে বলা হয়েছে, ওই ২৭ শিল্পীর সরকারি বাড়িতে থাকার মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে। এগুলো আর নতুন করে এক্সটেনশন করা যাবে না। নোটিশ হাতে পাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিয়েছেন ৮৩ বছরের বিরজু মহারাজ। তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন,আমার অসুবিধার কথা প্রধানমন্ত্রীকে লিখেছি। আশা করি সবদিক বিবেচনা করে তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন।

চিত্র শিল্পী যতীন দাস জানিয়েছেন, সরকারের তরফ থেকে পাওয়া দিল্লির ওই বাড়ি ছাড়া তাঁরা আর কোনও থাকার জায়গা নেই। ‘এখন দুম করে কোথায় যাব? অনেকদিন ধরে তো এখানেই আছি। এই বাড়ির প্রত্যেকটি ইঁটের সঙ্গে আমার সম্পর্ক। এই করোনা আবহে আমাদের মতো শিল্পীদের তো বিপদে ফেলে দেওয়া হল।’

কুচিপুরি নৃত্যশিল্পী বনশ্রী রাও জানিয়েছেন, নোটিশ পড়ে মনে হচ্ছে আমরা যেন বেআইনিভাবে বাড়ি দখল করে রেখেছি। জানা গেছে, ২০১৪ সালে কেন্দ্রীয় নগরোন্নয়ন মন্ত্রক থেকে পুরনো বকেয়া হিসাবে শিল্পীদের কাছ থেকে গত ৪ বছরের জন্য ৯ লাখ টাকা করে চাওয়া হয়েছিল। শিল্পীরা দফায় দফায় তা দিয়েও দিয়েছেন। তারপরেও কেন এমন উচ্ছেদের নোটিশ, তা ভেবে অবাক হচ্ছেন অনেকেই।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only