বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০

৩ মাসে ৭৬ নিখোঁজ শিশু উদ্ধার, রাতারাতি পুরস্কার পেলেন সীমা


 


নয়াদিল্লি, ১৯ নভেম্বর:মাত্র ৯০দিন। তারমধ্যে ৭৬জন হারানো শিশুকে উদ্ধার। যার জেরে সংবাদের শিরোনাম থেকে সোশ্যাল মিডিয়া, সর্বত্রই এখন চর্চিত দিল্লি পুলিশের হেড কনস্টেবল সীমা ঢাকা। শুধু সোশ্যাল মিডিয়া কিংবা সংবাদমাধ্যমই নয়। সীমার কাজে খুশি তাঁর ডিপার্টমেন্টও। সাহসী কাজের পুরস্কার স্বরূপ তাঁকে রাতারাতি দেওয়া হয়েছে প্রমোশনও।

ঘটনা হল, দিল্লি পুলিশের কমিশনার এস এন শ্রীবাস্তব ৩ মাস আগে একটি ইনসেনটিভ স্কিম ঘোষণা করেছিলেন। এই স্কিমে ঘোষণা করা হয়, নিখোঁজ শিশুদের খুঁজতে পারলে পদোন্নতি দেওয়া হবে। সীমা ঢাকা প্রথম পুলিশ, যাঁর এই স্কিমে পদোন্নতি হল।নিখোঁজ শিশুদের ৭৬ জনের মধ্যে ৫৬ জনের বয়স ১৪ বছরের কম। তবে শুধু দিল্লি নয়। পাঞ্জাব, পশ্চিমবঙ্গের মতো বহু রাজ্য থেকেই নিখোঁজ হয়ে যায় ৭৬জন শিশু।

দিল্লি পুলিশের অতিরিক্ত জনসংযোগ আধিকারিক অনিল মিত্তল জানান, দিল্লির বিভিন্ন থানাতে ৭৬জন শিশুর নিখোঁজের ডায়েরি হয়েছিল। মাত্র ৩মাসের মধ্যেই সবাইকে খুঁজে বের করেন সীমা ঢাকা। সাহসী এই অভিযানে নামার আগে গত জুলাইয়ে কোভিড আক্রান্ত হন সীমা। তিন সপ্তাহ বাড়িতে আইসোলেশনে ছিলেন। এরপর ফের কাজে যোগ দেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী মোট ৫,৪১২জন শিশু নিখোঁজ হয়। এরমধ্যে ৬১.৬৪ শতাংশ শিশুকে উদ্ধার করা গেছে। চলতি বছর অক্টোবর পর্যন্ত নিখোঁজ হয় ৩,৫০৭জন শিশু। যাদের মধ্যে উদ্ধার হয় মাত্র ৭৪.৯৬ শতাংশ শিশু।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only