রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০২০

যোগীরাজ্যে পুড়িয়ে খুন দলিতকে

পুবের কলম প্রতিবেদকঃ দেশে তীব্র নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে দলিত ও সংখ্যালঘুরা। যোগীরাজ্যের আমেঠিতে এক দলিতকে বেধড়ক পিটিয়ে মারার ঘটনা তারই সাক্ষ্য দিচ্ছে। হাথরসের ঘটনার দগদগে ক্ষত মানুষের মন থেকে এখনও শুকায়নি। শুধু মারধর করেই ক্ষান্ত হয়নি। তার শরীরে আগুন লাগিয়ে দিয়ে তাকে জীবন্ত অগ্নিদগ্ধ করা হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের আমেঠিতে। মৃত দলিত ৫০ বছর বয়সি অর্জুন কোরি বন্দৌয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ছোটকা দেবীর স্বামী। ঘটনার পরপরই অর্জুনকে সুলতানপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং পরবর্তীতে লখনউয়ের ট্রমা সেন্টারে রেফার করা হয়। সেখানে পৌঁছানোর সময় পথিমধ্যে তার মৃতু্য হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে মৃতের পরিবারের সদস্যরা কে.কে তিওয়ারি ও চারজনের নামে একটি এফআইআর দায়ের করেছে। ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত চলছে এবং অপরাধীদের শীঘ্রই গ্রেফতার করা হবে বলে পুলিশ আশ্বাস দিয়েছে।


ছোটকা দেবী গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান। সেই হিসেবে তিনি দলিত হলেও ক্ষমতা পেয়েছেন। কিন্তু সেই দলিত হওয়ার কারণেই তাদের উপর বিদ্বেষ বেড়েছে একশ্রেণির মানুষের। বিজেপিশাসিত যোগীরাজ্যে এমন ঘটনা হরহামেশাই ঘটছে। ছোটকা দেবী জানাচ্ছেন পঞ্চায়েতের উন্নয়ন তহবিলের অর্থ নিয়েই এই সংঘাত। তিওয়ারি ও তার পোষা গুন্ডারা ওই টাকা থেকে ‘হপ্তা’ দেবার জন্য আমাদেরকে হুমকি দিচ্ছিল। ওরা ভাবছিল উন্নয়নের অর্থ আমরা নয়ছয় করে নিজেদের পকেটে পুরছি। সিনিয়র অফিসাররা বিষয়টি দেখছেন এবং এখানে তছরুপ সম্ভব নয় বললেও ওরা বুঝতে চায়নি। আলোচনার কথা বলে বৃহস্পতিবার ওরা আমার স্বামীকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে আমাদেরকে কয়েকজন গ্রামবাসী জানান তাকে প্রহার করে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে নৃশংসভাবে। মৃতের পুত্র সুরেন্দ্র কোরি অভিযোগ করেছেন পুলিশ অভিযুক্তদের ধরতে তেমন উদ্যোগ নিচ্ছে না। তিনি বলেন কয়েক মাস আগেই আমাদের পুরো পরিবারকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়। উন্নয়ন তহবিল থেকে ওরা ‘হপ্তা’ চাইছিল। তখনএ নিয়ে অভিযোগ জানালেও কোনও পদক্ষেপ নেয়নি পুলিশ। তাছাড়া আমার বাবা-মা ক্ষমতার অপব্যবহার করতে দেননি। সাধারণত দলিত প্রধান হলেও ক্ষমতার ছড়ি ঘোরান উঁচুজাতের কেউ। বাবা-মা সেটা হতে না দেওয়ায় তাদের মনে ক্ষোভ ছিল আগে থেকেই।       

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only