মঙ্গলবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২০

আট মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা মূক ও বধির স্ত্রীকে ফেলে পালালো স্বামী


                                                      ( ছবি: পলাতক স্বামী রফিকুল সরদার )

পুবের কলম প্রতিবেদক, বারাসত:  আট মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা মূক ও বধির স্ত্রীকে ফেলে পালালো স্বামী। সেই স্বামীকে খুজেঁ পেতে স্বামীর ছবি নিয়ে পুলিশের দারস্হ হলেন মূক বধির স্ত্রী।এমনই ঘটনা ঘটনা দেগঙ্গার বেড়াচাঁপা ১ পঞ্চায়েতের বেলপুর গ্রামের ।পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, সাড়ে তিন বছর আগে পেশায় ভ্যান চালক ফকির সরদারের বাড়িতে আসেন দোহারা চেহারার বছর বত্রিশের রফিকুল সরদার। ঠিকানাহীন রফিকুল বিয়ে করতে চায় ভ্যান চালকের মূক বধির মেয়ে তাজমিরাকে। বিয়ের পর শ্বশুর বাড়িতে থাকতো রফিকুল। বর্তমানে রফিকুলের স্ত্রী তাজমিরা আট মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা। গত ৫ই নভেম্বর কাজে যাচ্ছি বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফিরে আসেনি। এরপর অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রী অসুস্থ  শরীর নিয়ে স্বামীকে খুঁজে বেড়িয়েছেন সবর্ত্র। কোথায় সন্ধান না মেলায় মঙ্গলবার পুলিশের দারস্হ হন তিনি । সঙ্গে তার বাবা ফকির সরদার ও মা আরিফা বিবি।

এদিন আরিফা বিবি বলেন, অসহায় মেয়েকে বিয়ে করেছিল রফিকুল। তার বাড়ি কোথায় তাও আমাদের জানা নেই। এমন কথা বলতে না পারা অন্তঃস্বত্ত্বা মেয়েকে নিয়ে আমরা কোথায় যাবো। সেই তো মুখ ও হাতের ইশারায় বলছে আমার স্বামীকে খুঁজে এনে দাও।


ফকির সরদার জানায়, আমার তিন মেয়ের মধ্যে তাজমিরা জন্ম থেকে মুক ও বধির। ভেবেছিলাম অসহায় মেয়েটা রফিকুলকে পেয়ে সুখে থাকবে। তাই বিয়ে দিয়েছিলাম। তখন ভেবে দেখেনি ছেলেটার বাড়ি কোথায়। এখন মেয়েটা পাগলের মতো তার স্বামীকে খুঁজছে। আমি বাবা হয়ে মেয়ের কষ্ট সহ্য করতে পাচ্ছি না।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only