শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

‘কৃষক আন্দোলন ন্যায়সংগত’ , সব স্টেডিয়ামকে অস্থায়ী জেলখানা তৈরির প্রস্তাব ফেরাল কেজরি সরকার

 


পুবের কলম প্রতিবেদকঃ কেন্দ্রের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ অব্যাহত। পঞ্জাব কৃষকরা ‘দিল্লি চলো’ অভিযান শুরু করেছে। সেইমতো তারা দিল্লিতে পৌঁছেও গিয়েছে। কৃষকদের এই প্রতিবাদ, আন্দোলনকে দমন করতে দিল্লির স্টেডিয়ামগুলিকে অস্থায়ী জেলখানা করতে চেয়েছিল দিল্লি পুলিশ। তাদের উদ্দেশ্য ছিল, আন্দোলনকারী কৃষকদের গ্রেফতার করে ওই অস্থায়ী জেলখানায় আটকে রাখা। কিন্তু কেজরিওয়াল সরকার পুলিশের এই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে। কেজরিওয়াল সরকারের বক্তব্য, কৃষকদের এই আন্দোলন ন্যায়সংগত। তাই পুলিশের এই আবেদনে সম্মতি জানানো তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। উল্লেখ্য, দিল্লি পুলিশ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মন্ত্রকের নিয়ন্ত্রণাধীন।

বিরাট সংখ্যায় দিল্লিমুখী আন্দোলনকারী কৃষকদের আটক করতে রাজ্যের ৯টি স্টেডিয়ামকে অস্থায়ী জেলখানায় রূপান্তরিত করতে চেয়ে দিল্লি পুলিশের করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আম আদমি পার্টি সরকারের স্বরাষ্ট্র দফতর। দিল্লি পুলিশের আর্জি পত্রপাঠ খারিজ করে দিয়ে রাজ্যের অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকার দাবি করেছে, কৃষকদের এই আন্দোলন যুক্তিযুক্ত। এই প্রসঙ্গে দিল্লির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন বলেন, ‘কৃষকদের আন্দোলন যুক্তিপূর্ণ। কেন্দ্রের উচিত অবিলম্বে কৃষকদের রাখা দাবিগুলি মেনে নেওয়া। তাছাড়া কৃষকদের এই আন্দোলন সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ। শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করা প্রত্যেক ভারতীয়র গণতান্ত্রিক অধিকার। এজন্য তাদের জেলে পোরা যায় না। সে কারণেই দিল্লি সরকার দিল্লি পুলিশের ৯টি স্টেডিয়ামকে অস্থায়ী জেলখানায় পরিণত করার আবেদন নাকচ করে দিয়েছে।’ উল্লেখ্য, শুক্রবার সকালেই হাজার হাজার আন্দোলনকারী কৃষক দিল্লি সীমান্তে পৌঁছে যায়। ফলে দিল্লি পুলিশ তাদের আটক করতে আপ সরকারের থেকে অনুমতি চায় স্টেডিয়ামগুলিকে অস্থায়ী জেলখানায় রুপান্তরিত করার জন্য।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only