রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০

মহাশূন্য থেকে রহস্যময় রেডিয়ো সিগনাল , সূর্যের থেকেও শক্তিশালী তরঙ্গে এলিয়েনদের সম্ভাবনাই কী?



বিশেষ প্রতিবেদনঃ এলিয়েন বা ভিনগ্রহীদের নিয়ে কৌতুহলের অন্ত নেই। যা নিয়ে বহুদিন ধরে নিরন্তর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। বেশ কিছু সিনেমাও তৈরি হয়েছে হলিউডে। কিন্তু এখনও কেউ হলফ করে বলতে পারছেন না যে আদৌ এলিয়েন বা ভিনগ্রহীদের কোনও অস্তিত্ব আছে কিনা। তবে এদের নিয়ে সম্ভাবনা ক্রমশই জোরালো হচ্ছে। যদিও এখন পর্যন্ত কোনও ঠোস সবুদ মেলেনি। সুতরাং বলা যায় আপাত দৃষ্টিতে এলিয়েন ইস্যু কল্পবিজ্ঞানের টানটান উত্তেজনাময় একটা বিষয়। অনেকে আবার বলছেন এলিয়েনের কনসেপ্টটা সম্পূর্ণ ভুয়ো। যার সঙ্গে বাস্তবের বিন্দুমাত্র মিল পাওয়া সম্ভবপর নয়। তবে মহাকাশ বিজ্ঞানীরা এত সহজে হাল ছাড়তে রাজি নন। তাঁরা দিন-রাত এক করে ভিনগ্রহীদের সন্ধানে কাজ করে চলেছেন। কখনও সখনও তাঁরা আবছা ইঙ্গিতও পাচ্ছেন।

এদিকে সম্প্রতি একদল মহাকাশ বিজ্ঞানী দাবি করেছেন মহাশূন্যের কোথাও থেকে রহস্যজনক রেডিয়ো সিগনাল আসছে। যা সেকেন্ডেরও কম সময় বা মাইক্রোসেকেন্ড স্থায়ী হচ্ছে। তাই এর উৎস ধরা সম্ভব হচ্ছে না। এই সিগনালের বৈদ্যুতিক তরঙ্গ সূর্যের থেকেও কয়েকগুণ বেশি শক্তিশালী। মহাজগতের এত নিকটবর্তী অজ্ঞাত স্থান থেকে এর আগে এত ফার্স্ট রেডিয়ো সিগনাল কখনও আসেনি। বিজ্ঞানীদের অনুমান এলিয়েনদের  ব্যাবহার করা কোনও প্রযুক্তির জন্যই হয়ত আমাদের বাসযোগ্য পৃথিবীতে এই সিগনাল আসছে। জাপানি পদার্থ বিজ্ঞানী কিয়োশি মাশুই বলেছেন এপ্রিলের শেষ থেকেই এরকম সিগনাল মাঝেমধ্যে আসছে। তাঁর অনুমান ক্ষণস্থায়ী এই রেডিয়ো সিগনাল মিল্কিওয়ে বা ছায়াপথ থেকেই সম্ভবত আসছে। এর উৎস সন্ধানে গবেষণা চালাচ্ছেন মাশুই ও তাঁর টিম। উল্লেখ্য একযুগ আগে ২০০৭ সালেও মহাকাশ থেকে এমন অজানা রেডিয়ো সিগনাল এসেছিল।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only