শুক্রবার, ২০ নভেম্বর, ২০২০

বুন্দেলশহরে দলিত গণধর্ষিতার মৃত্যু ঘিরে প্রবল উত্তেজনা গ্রামে



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ ফের উত্তরপ্রদেশের বুন্দেলশহরে হাথরস ঘটনার পুনরাবৃত্তি। এক দলিত যুবতীর পুড়ে মৃতু্যর ঘটনায় প্রবল উত্তেজনা ছড়িয়েছে গ্রামে। গতকাল মধ্যরাতে ওই যুবতীর অন্ত্যেষ্টি করা হয়। পরিবারের অভিযোগ, অভিযুক্তরা নিয়মিত যুবতীর ওপর আপোষ করার জন্য চাপ সৃষ্টি করছিল। রাজি না হওয়ায় নির্যাতিতাকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল অভিযুক্তরা গ্রামের প্রভাবশালী ব্যক্তি বলেই জানা গিয়েছে। বর্তমানে গ্রামের পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে ডিএম এবং এসএসপি-সহ উচ্চ পুলিশ আধিকারিক মোতায়েন রয়েছে।

ঘটনাটি জাহাঙ্গিরাবাদ এলাকায় ঘটে। গণধর্ষণের শিকার যুবতীকে মঙ্গলবার পুড়িয়ে মারার অভিযোগ আসার পর নড়েচড়ে বসে রাজ্য পুলিশ প্রশাসন। এই ঘটনায় বিরোধী দলগুলিও যোগী সরকারকে এক হাত নিয়েছে। গুরুতরভাবে আগুনে ঝলসে যাওয়া যুবতীকে দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা হলে সেখানেই তাঁর মৃত ঘোষণা করা হয়। 

বুন্দেলশহরের পুলিশ আধিকারিক সন্তোষকুমার সিংহের বয়ান অনুযায়ী, প্রশাসনিক কাজে গাফিলতির অভিযোগে এখনও পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট থানার দুই পুলিশ আধিকারিককে সাসপেন্ড করা হয়েছে। এছাড়া পাঁচ অভিযুক্ত বদন সিংহ,বীর সিংহ, যশবন্ত সিংহ এবং গৌতমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্তের পর সিওকেও সাসপেন্ড করা হয়েছে।

অখিলেশ যাদব প্রশ্ন করেন নারী সুরক্ষার ধ্বজাধারী যোগী সরকারের বাস্তবতা কি এটাই? যুবতীর পরিবারের সদস্যদের সারারাত হাসপাতাল প্রশাসনের ময়নাতদন্তের রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করতে হয়। ময়নাতদন্তে দেরির কারণ হিসেবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাফাই, প্রথমে করোনা পরীক্ষা করেই ময়নাতদন্ত শুরু করা হয়েছে। কিন্তু সূত্রের খবর প্রশাসন ঘটনার গুরুত্ব দিতে যাতে হাথরসের মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয়, অর্থাৎ ঘটনাটিকে ধামাচাপা দিতেই মৃতদেহ ছাড়তে দেরি করে হাসপাতাল প্রশাসন। যুবতীর অন্ত্যেষ্টি নিয়েও গ্রামে উত্তেজনা প্রবল। প্রাথমিকভাবে বুন্দেলশহরের এসএসপি বয়ান দিয়েছিলেন, ধর্ষিতা যুবতী আত্মহত্যা করতেই নিজের গায়ে আগুন দিয়েছে। 

আশ্চর্যজনক ঘটনা হল বুন্দেলশহরে এক সপ্তাহে এটি তৃতীয় গণধর্ষণের ঘটনা। 

উত্তরপ্রদেশ মহিলা কমিশনের পূর্বতন সদস্য রোলি তিওয়ারি মিশ্র বলেন ‘এই ঘটনা অত্যন্ত দুঃূজনক। রাজ্যে মহিলাদের প্রতি অপরাধ দিনদিন বেড়েই চলেছে। সরকারের ‘মিশন শক্তি’ অভিযান শুধু নামেই রয়ে গেছে। একই সপ্তাহে বুন্দেলশহরে তিন-তিনটি গণধর্ষণের ঘটনা রাজ্যের আইনশৃঙূলার ক্ষেত্রে ঘোর অশনিসংকেত বলে তিনি মনে করেন।  


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only