শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

রোহিঙ্গাঃ জাম্বিয়াকে বার্মার বিরুদ্ধে মামলার খরচ দেবে ওআইসি



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ রোহিঙ্গা গণহত্যা ও দেশান্তর ইস্যুতে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা চালাতে জাম্বিয়া সরকারকে আর্থিক সহায়তা দেবে ওআইসি। নাইজারের রাজধানী নিয়ামিতে শুক্রবার শুরু হয়েছে মুসলিম বিশ্বের বৃহত্তম সংগঠন ওআইসি-র বিদেশমন্ত্রীদের ৪৩তম বৈঠক। এই উপলক্ষ্যে ওআইসি-র ৫৭ সদস্য রাষ্ট্রের বিদেশমন্ত্রী উপস্থিত হয়েছেন। সেখানেই রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে আলোচনা চলছে। প্রথম দিনের অধিবেশনেই রোহিঙ্গা ইস্যুতে হেগ আদালতে মামলা চালানোর জন্য কীভাবে আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়াকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া যায়, সে ব্যাপারে একটা তহবিল গঠনের লক্ষ্যে আলোচনা হবে। মূলত তুরস্ক এবং বাংলাদেশের আবেদনের ভিত্তিতেই এবার রোহিঙ্গা ইস্যুকে অ্যাজেন্ডার শীর্ষে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া ওআইসি-র সদস্য নয় এমন সব দেশে মুসলিম-সহ অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের হালহকিকত নিয়েও আলোচনা হবে। 

ওআইসি-র একাদশতম সেক্রেটারি জেনারেল ড. ইউসূফ আল ওথাইমেন এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, এবারের বৈঠকে আমেরিকায় ক্ষমতার পালাবদল এবং তার জেরে মার্কিন বিদেশনীতি ও মধ্যপ্রাচ্য নীতিতে সম্ভাব্য বদলের বিষয়কে খুব গুরুত্ব দেওয়া হবে। ফ্রান্সের সাম্প্রতিক ইসলাম ও মুসলিম বিদ্বেষী নীতি এবং প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর অবস্থানও আলোচিত হবে। এ ছাড়াও ইসরাইলের সঙ্গে কয়েকটি আরব দেশের সুসম্পর্ক গড়ার লক্ষ্যে বিতর্কিত চুক্তি সইয়ের বিষয়টি প্রাধান্য পাবে। ইরান, ফিলিস্তিন, সিরিয়া, লিবিয়া, লেবানন প্রভৃতি অ্যাজেন্ডা চলতি অধিবেশনে অগ্রাধিকার পাবে। এসব বৃহৎ ইস্যুতে সুচিন্তিত মতামত পেশ করবেন ওআইসি-র সদস্য দেশগুলোর বিদেশমন্ত্রী বা শীর্ষ কূটনীতিকরা।

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গা মুসলিমদের গণধর্ষণ, গণহত্যা ও অস্ত্র উঁচিয়ে প্রায় ১০ লক্ষ রোহিঙ্গাকে দেশ ছাড়া করার বিষয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত আইসিসিতে গতবছর ১১ নভেম্বর মামলা রুজু করে গাম্বিয়া সরকার। ওআইসি কাউন্সিল অফ ফরেন মিনিস্টার্স ফোরাম-এর দু’দিনের এই অধিবেশনে সন্ত্রাসবাদ, ইসলামফোবিয়া, ব্লাসফেমি বিষয়ে নতুন গাইডলাইন নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা। এ ছাড়াও রাজনৈতিক পটপরিবর্তন, কূটনৈতিক রণকৌশল, সন্ত্রাস নির্মূলের নাম করে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস, মানবিক ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতি, আর্থ-সামাজিক মানোন্নয়ন, ত্রাণ ও মানবিক সহায়তা, সংস্কৃতি,ঐতিহ্য, মিডিয়া ও সোশ্যাল মিডিয়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির মতো সময়োপযোগী বিভিন্ন বিয়ে বক্তব্য রাখবেন মুসলিম দেশগুলোর বিদেশমন্ত্রী ও কূটনীতিকরা। এই মর্মে ওআইসি-র প্ল্যান অফ অ্যাকশন-২০২৫ এবং তার রুপরেখা নিয়েও প্রস্তাব নেওয়া হবে। সবশেষে শনিবার রেজল্যুশন পাস হবে বলে খবর।  


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only