শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

অধিকার আদায়ের আন্দোলনে আমেরিকার আদিবাসীরা



পুবের কলম আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ থ্যাঙ্কসগিভিং ডে উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার এক অভিনব আন্দোলনে শামিল হল আমেরিকার আদিবাসী সমাজ। এদিন ক্যালিফোর্নিয়া থেকে ম্যাসাচুসেটস পর্যন্ত পদযাত্রা করে বাপ-দাদার জমি-ভিটে বা পৈতৃক সম্পত্তির অধিকার ফিরে চাওয়ার দাবিতে সোচ্চার হলেন কয়েক হাজার আদিবাসী। এর আগে এভাবে রাস্তায় নেমে জমি আন্দোলন সংগঠিত হতে দেখা যায়নি। অনেকে মনে করছেন, বিদায়কালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি এদের অধিকার পাইয়ে দিতে সদয় হন, সেই আশাতেই তারা পথে নেমেছেন। কেউ কেউ বলছেন, এখন এই আন্দোলন না করে কয়েক মাস আগে নির্বাচনের প্রাক্কালে হলে দ্রুত সাফল্য পেতেন আদিবাসীরা। ভোট বড় বালাই। তাই সে সময় পথে নামলে হয়ত চটজলদি দাবি মেনে নিত সরকার পক্ষ।

উল্লেখ্য কানাডা, লাতিন আমেরিকা সহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থ্যাঙ্কসগিভিং ডে একটা ঐতিহ্যবাহী দিন। সপরিবার ও সবান্ধবে ছুটি কাটানো এবং বিশেষ খাবারের আয়োজন হয়। মূলত মার্কিন মুলুকের আদি জনগোষ্ঠীকে স্মরণ করতেই তাঁরা এদিন একত্রিত হন। অর্থাৎ এই উৎসব প্রধানত আদিবাসীদের।

কথিত আছে ১৬২১ সালে একটা আদিবাসী গোত্র ঔপনিবেশিক শাসকদের সঙ্গে চুক্তি করে। কিন্তু সেই চুক্তি ঠিকঠাক বাস্তবায়িত হয়নি। উলটে আদিবাসীদের সংখ্যা ও তাদের সুযোগ-সুবিধা ক্রমশই সংকুচিত হয়েছে। ভুল বুঝিয়ে কিংবা গায়ের জোরে তাদের সম্পত্তি কুক্ষিগত করেছে শ্বেতাঙ্গ ভূস্বামীরা। আবার ইদানিংকালে এই উৎসবকে আদিবাসীদের থেকে হাইজ্যাক করে নিয়েছে শ্বেতাঙ্গ সেটেলাররা। তাই জমি-ভিটের পাশাপাশি এই উৎসবকেও পরম্পরাগত আঙ্গিকে ফিরে পেতে এদিন গর্জে ওঠেন আদিবাসীরা। তাদের দাবি, আমেরিকার মূল ভূখণ্ডের অধিকাংশই তাদের পূর্বপুরুষদের জমি। ২০০৭ পর্যন্ত সরকার এসব গোত্রকে স্বীকৃতিই দেয়নি। পরে আদালতের নির্দেশে তারা আইনি স্বীকৃতি পান। এখন তাদের দাবি, তারা আর চিড়িয়াখানার জীবজন্তুর মতো থাকতে চায় না। তারা তাদের সব অধিকার ফেরত পেতে চায়। উল্লেখ্য, হোয়াইট হাউসের রোজ গার্ডেনে এই উৎসব সেলিব্রেট করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্টলেডি।   


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only