সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০

ট্রাম্পের সমাবেশ সুপার-স্প্রেডার ? উঠছে প্রশ্ন



পুবের কলম ওয়েব ডেস্কঃ  কোনও স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই। সমর্থকদের সুরক্ষা-সুবিধার কথা না ভেবে ট্রাম্প শুধুমাত্র নিজের স্বার্থে প্রচার চালিয়ে গিয়েছেন। নির্বাচনী সমাবেশে ও প্রচার চলাকালীন কেউ করোনা আক্রান্ত বা অসুস্থ হলেন কি না তার খোঁজ তিনি থোড়াই রেখেছেন! জানা গিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ১৮টি নির্বাচনী সমাবেশ থেকে অন্তত ৩০ হাজার মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন মারা গিয়েছেন ৭০০ জনেরও বেশি। সম্প্রতি ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণা প্রতিবেদন থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে। বলা হয় গত ২০ জুন থেকে ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অনুষ্ঠিত এসব সমাবেশ থেকে অতিরিক্ত ৩০ হাজার মানুষ করোন ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। তবে সংক্রমণের এ সকল ঘটনা এড়ানো যেত বলেই মনে করছেন গবেষকরা। তাঁদের মতে যেসব এলাকায় ট্রাম্পের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে সেসব এলাকার মানুষদের রোগ ও মৃত্যু   বেড়েছে। ট্রাম্প নির্বাচনী সমাবেশ শেষ করে যাওয়ার পর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে গবেষণা চালানোর পরই এই প্রতিবেদনটি তৈরি হয়েছে। আমেরিকার রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র বলছে বড় জনসমাবেশগুলোতে অংশগ্রহণকারীরা মাস্ক ও সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিংয়ের নির্দেশ না মানলে তা ব্যাপক হারে সংক্রমণ ছড়ানোর কারণ হতে পারে। আর ট্রাম্পের প্রত্যেকটি সমাবেশে ঠিক হয়েছেও তাই। গবেষকরা বলছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাচনী সমাবেশে সংক্রমণের ঝুঁকিগুলোকে অবহেলা করা হয়েছে। এর ফলে প্রতিটি সমাবেশই হয়ে গিয়েছে ‘ সুপার-স্প্রেডার ’। স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এই প্রতিবেদন পড়ার পর ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী এক টু্যইটে ট্রাম্পকে বিঁধে বলেন প্রেসিডেন্ট কারওর জন্য চিন্তা করেন না। তিনি নিজের সমর্থকদের খেয়াল রাখেন না।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only