শনিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২০

বেকারত্বের সংখ্যায় দ্বিতীয় স্থানে বিহার, কেরলের ১ নম্বরে

 


পাটনা,১৪ নভেম্বরঃ করোনা অতিমারী এবং লকডাউনে সারাদেশে বেকারত্বের সংখ্যা ভয়াবহ রুপধারণ করেছে। অবস্থা এমন বিহারে যেই সরকার গঠন করুক তাদের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হবে ‘বেকারত্ব’। অতি দ্রুত কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে নতুন সরকারকে। বেকারত্বের  সংখ্যার দিক থেকে কেরলের পরেই স্থান বিহারের। বর্তমান পরি সংখ্যান অনুসারে ভারতে ১৫ থেকে ২৯ বছর বয়সী যুবক-যুবতীদের প্রায় ১৭.৩ শতাংশ বেকার। কেরলে বেকারত্বের হার ৩৫.২ শতাংশ। দ্বিতীয় বিহারে বেকারত্বের হার ৩০.৯ শতাংশ। দক্ষিণ ভারতের দুই রাজ্য তেলেঙ্গানা (২৭.৪ শতাংশ), তামিলনাডু (২৭.৪ শতাংশ) এই তালিকাভুক্ত। অসম পঞ্চম স্থানে রয়েছে। এ রাজ্যে বেকারত্বের হার ২৩.৫ শতাংশ। 

বিহারের ভবিষ্যতের জন্য সমস্যা হল এখানে ১৪ বছরের কম বয়সীর সংখ্যা কেরলের থেকে অনেকটা বেশি। কেরলে ১৪ বছরের কম বয়সীর  সংখ্যা মোট জন সংখ্যার ২২.৯ শতাংশ যেখানে বিহারে মোট জন সংখ্যার ৩৪.৬ শতাংশ ১৪ বছরের কম বয়সী।

বিহারের প্রচার অভিযানে জেডিইউর মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী তেজস্বী যাদক্ষমতায় এলে ১০ লক্ষ চাকরির অঙ্গীকার করেছেন। অন্যদিকে বিজেপি তাদের ঘোষণাপত্রে ১৯ কর্মসংস্থান তৈরির কথা বলেছে। ন্যাশনাল স্যাম্পেল সার্ভের রিপোর্ট  ২০১৮-১৯ সালে বেকারত্ব ১০.২ শতাংশ ছিল অর্থাৎ ২০১৭-১৮ সালে ৭.২ শতাংশের হিসেবে ৩ শতাংশ বেকারত্ব বেড়েছে। লকডাউনের পর বহু পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজ্যে ফিরেছে। এদের কর্মসংস্থান করা নীতীশকুমার সরকারের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে।  


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only