সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০

ধর্মান্তরণ-বিরোধী আইনে প্রথম মামলা জমা পড়ল যোগীরাজ্যে

 


পুবের কলম প্রতিবেদকঃ আইন পাস হওয়ার পরই উত্তরপ্রদেশের বরেলি জেলায় প্রথম ধর্মান্তরণ-বিরোধী আইনে মামলা জমা পড়ল। দেবনারায়ণ থানায় এক তরুণীর বাবা হাজির হয়ে মামলা দায়ের করলেন। শরিফ নগরের তিকারাম নামে ওই ব্যক্তি উবাইশ আহমদের নামে অভিযোগ করেন যে, ‘টোপ’ দিয়ে উবাইশ তাঁর মেয়েকে ধর্মান্তরিত করার চেষ্টা করছেন। এমনটাই জানালেন পুলিশ আধিকারিক। উবাইশ আহমদের বিরুদ্ধে অ্যান্টিকনভার্সন আইনের ধারায় মামলা করা হয়েছে। গত শনিবার উত্তরপ্রদেশের রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল ধর্মান্তরণ-বিরোধী অর্ডিন্যান্সে স্বাক্ষর করেছেন। জোর করে বা জালিয়াতি করে ধর্মান্তরিত করলে ১০ বছর পর্যন্ত সাজা হবে এবং সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা। বিয়ের মাধ্যমে ধর্মবদল ঠেকাতে যোগী আদিত্যনাথ সরকার এই আইন লাগু করেছে। এই আইনে বলা হয়েছে, শুধুমাত্র বিয়ের জন্য কোনও মেয়ে ধর্মবদল করেন তাহলে সেই বিয়ে ‘বাতিল’ বলে গণ্য হবে। আবার বিয়ের পর ধর্ম পরিবর্তন করতে ইচ্ছুকদের জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে আবেদন করতে হবে। এই অর্ডিন্যান্সের মূল লক্ষ্য হল, ভুল বুঝিয়ে,জোর করে, প্রভাব খাটিয়ে, চাপ সৃষ্টি করে, টোপ দিয়ে,জালিয়াতি করে বা বিয়ের মাধ্যমে ধর্মবদল রোখা। কিন্তু আইন পাস হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই উবাইশ আহমদকে যেভাবে মামলার মুখে পড়তে হয়েছে তাতে বিশেষজ্ঞরা সন্দেহ করছেন যে, এই আইন দিয়ে ‘লাভ জিহাদের’ নামে মুসলিমদের আরও দমন-পীড়ন করার চেষ্টা করা হবে। এইভাবে হিন্দু নারীর স্বাধীনতার উপর হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে, তাও মনে করছেন মহিলা সমাজকর্মীদের সংগঠন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only