রবিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২০

জঙ্গলে ফল-মূল খেয়েই কাটছে ২১ বছরের ‘মুগলির’



কিগালি, ৫ ডিসেম্বরঃ আদপে সে একজন মানুষই। কিন্তু দেখতে একটু অন্যরকম। তাই গ্রামবাসীরা তাকে ঠাট্টা-বিদ্রুপ করত। কেউ বলত নিগ্রো, কেউ বলত এলিয়েন, কেউ বা বলত মুগলি। এহেন অদ্ভুত দর্শন ছেলেকে নিয়ে মায়ের বিড়ম্বনাও কম ছিল না। স্বভাবতই মাতৃস্নেহ থেকে বঞ্চিত হয়ে জঙ্গলেই ১৫-১৬ বছর কাটিয়ে দিল জঞ্জিমান এলি নামে এক তরুণ। সম্প্রতি টিভি চ্যানেলে এক সাক্ষাতকারে তার মা দুঃখ করে বলেন, পাড়াপড়শিরা তাঁর ছেলেকে নিয়ে নানান অকথা-কুকথা বলত। তাই তার জীবন দুবির্ষহ হয়ে ওঠায় গ্রাম ছেড়ে শৈশবেই সে জঙ্গলে চলে যায়। এলি ছিল তাঁর ষষ্ঠ সন্তান। তার আগে জন্মানো ৫ সন্তানকেই হারিয়েছেন। তাদের পরে এলির জন্ম হলেও তাকে দেখতে হয় অদ্ভুত। মাথাটা খুব লম্বাটে,দাঁতগুলোও বিদঘুট, কথাও বলত অন্যরমক। বাল্যকালে অদ্ভ(ত আকার-ইঙ্গিত করতে সে। এসব অসংলগ্নতা দেখে গ্রামের ছেলেপুলেরা তাকে রাগাত,তাড়া করত, ঢিল ছুড়ত। তখন প্রতিশোধ নেওয়ার পরিবর্তে অদ্ভুত রকমের অঙ্গভঙ্গী করত এলি। শেষমেষ ৫-৬ বছর বয়সে অভিমানে পাড়াগ্রাম ছেড়ে জঙ্গলে চলে যায়।

চিকিৎসকরা বলেন, এলির বিরল অসুখটার নাম হল মাইক্রোসেফালি। গাছের ফল-মূল,লতা-পাতা,তৃণ-গুল্ম ইত্যাদি খেয়ে বন্য জীবজন্তুদের সঙ্গে থাকে। আফ্রিম্যাক্স টিভি চ্যানেলে সম্প্রতি দেখানো হয় এলির সংক্ষিপ্ত জঙ্গল-জীবন। সেই ডুকুমেন্টারিতে জানা যায়, আফ্রিকার অতিদরিদ্র দেশ রোয়ান্ডার এক উপজাতি পরিবারে ২১ বছর আগে জন্ম এলির। মা ছাড়া তার আর কেউ নেই। কিন্তু অন্য রকম দেখতে হওয়ায় বাল্যকালেই সে মাকে ছেড়ে ধিৎকারে জঙ্গলে চলে যায়। তারপর আর ফেরেনি। এখনও সে ৩৬৫দিন জঙ্গলেই থাকে। ৫ সন্তানকে হারিয়ে এলিকে পেলেও সে মায়ের কাছে থাকে না। তাই তার মায়ের মনোকষ্টের অন্ত নেই। কখনও কেউ তাকে রান্না করা খাবার দিলেও সে খায় না। ভাত-রুটি-তরকারি তার মুখে রোচে না। মানুষ দেখলে এক ছুটে সে চলে যায় জঙ্গলের ভিতর দিকে। সে গাছে চড়তে খুব ভালোবাসে। গাছের ডালে বসে দীর্ঘক্ষণ কাটাতে পছন্দ করে। খিদে পেলে নিচে নামে। গ্রামবাসীদের মুখে এসব শোনার পর তার মা বেশ কয়েকবার জঙ্গলে গিয়েছিলেন এলিকে ধরে আনতে। কিন্তু সে মায়ের ডাকে সাড়া দিয়ে আজও ঘরে ফেরেনি। তার চিকিৎসার জন্য অর্থ সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে ৪ হাজার ডলার জমা পড়েছে বলে জানিয়েছে আফ্রিম্যাক্স চ্যানেল কর্তৃপক্ষ।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only