রবিবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২০

মুসলিমদের ‘সংখ্যালঘু’ মর্যাদা বাতিলের দাবি বিজেপি নেতা সাক্ষী মহারাজের

 


নয়াদিল্লি, ২০ ডিসেম্বরঃ কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্যে মুসলিমদের ‘সংখ্যালঘু’ মর্যাদা বাতিলের দাবি  জানিয়েছেন বিজেপি’র ফায়ারব্রান্ড নেতা সাক্ষী মহারাজ এমপি। শুক্রবার তিনি উত্তরপ্রদেশের বাগপতে এক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে ওই মন্তব্য করেন। সাক্ষী মহারাজ এ দিন গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ভারতীয় মুসলিমদের সংখ্যালঘু মর্যাদা অবিলম্বে বিলুপ্ত করা সহ সংখ্যালঘু হিসবে পাওয়া সমস্ত সুবিধা বাতিলেরও দাবি জানিয়েছেন। 


তিনি বলেন, ‘বর্তমানে পাকিস্তানের জনসংখ্যার চেয়ে ভারতে মুসলিমদের জনসংখ্যা বেশি। ভারতে মুসলিমদের জনসংখ্যা ২০ কোটিতে পৌঁছেছে, এটি উদ্বেগের বিষয়।’ সাক্ষী মহারাজ বলেন, দেশে জমি কমছে এবং জনসংখ্যা বাড়ছে। সুপ্রিম কোর্টও এ সম্পর্কে বলেছে। এ কারণে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য শীঘ্রই আইন তৈরি করা উচিত। 


দেশে চলমান কৃষক আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকার কৃষি আইন নিয়ে আলোচনায় প্রস্তুত রয়েছে। প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেসকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘মানুষ রাম মন্দিরের মতো বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারে। কংগ্রেস এবং অন্য রাজনৈতিক দলেরও কৃষি আইন ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়া উচিত। কিন্তু নিজেদের রাজনৈতিক জমি খুঁজে পেতে নিরীহ কৃষকদের কাঁধে বন্দুক রেখে তা চালানো হচ্ছে।’ 


সাক্ষী মহারাজ এর আগেও বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। তিনি কথিত ‘লাভ জিহাদ’ প্রসঙ্গে মন্তব্যে বলেছেন, ভালোবাসা খুব ভালো শব্দ। প্রেম বিবাহের ঐতিহ্য আগে থেকেই চলে আসছে। এতে কারও কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু তাতে জিহাদ যুক্ত হলে তা বিষাক্ত হয়ে যায়। তাঁর দাবি, লাভ জিহাদের মধ্য দিয়ে হিন্দু মেয়েদের মুসলিম তরুণরা মিথ্যা পরিচয়ে ফাঁসিয়ে বিয়ে করে। ভালোবাসার বিয়ে ৯৯ শতাংশ সফল হলেও লাভ জিহাদ ৯৯ শতাংশ ব্যর্থ হয় বলেও সাক্ষী মহারাজ মন্তব্য করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only