রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০

দূরত্ববিধি মেনে রাজ্যজুড়ে বইমেলা গ্রন্থাগার দফতরের, জেনে নিন কবে থেকে শ‍ুর‍ু হচ্ছে



আবদুল ওদুদ

কোভিড পরিস্থিতিতে এই প্রথম বইমেলা করার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্যের গ্রন্থাগার দফতর। আগামী ১৫ ডিসেম্বর থেকে ১৫ ফেব্র‍ুয়ারি দু’মাস ২৩টি জেলায় এই বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার এ কথা জানিয়েছেন রাজ্যের গ্রন্থাগার ও জনশিক্ষা প্রসার দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি। ২৩টি জেলা সদর শহরে এই বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে। প্রত্যেক বইমেলার মেয়াদ ৬ দিন করে। প্রথম বই মেলাটি অনুষ্ঠিত হবে বর্ধমানের কাটোয়ায়। সেখান থেকেই গ্রন্থাগার দফতরের এই বছরের প্রথম বইমেলার উদ্বোধন করবেন মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি। থাকবেন রবীন্দ্র সরকার এবং স্বপন দেবনাথ। 


এ দিন জানান মালদা জেলায় দু’টি বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে। একটি মালদা টাউন এবং অপরটি চাঁচলে। কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে কীভাবে বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে এ প্রসঙ্গে গ্রন্থাগার মন্ত্রী মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি বলেন, রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে বইমেলার আয়োজন করবেন গ্রন্থাগার দফতর। বইমেলার প্রবেশের পথে প্রত্যেক ব্যক্তিকে স্যানটাইজ করা হবে এবং মাস্ক পরে বইমেলায় প্রবেশ করতে হবে। যদি কেউ মাস্ক না নিয়ে আসেন, তবে বইমেলা কর্তৃপক্ষই মাস্ক সরবরাহ করবে। প্রত্যেক বইমেলার জন্য বাজেট পেশ করা হয়েছে সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা। এ বছর যাঁরা স্টল দেবেন, তাঁদের ভাড়াবাবদ যে টাকা নেওয়া হত সেটা কমিয়ে অর্ধেক করা হচ্ছে। 


এ বছর ৩৫০০ টাকা স্টল নেওয়ার জন্য দিতে হবে। বই বিক্রেতাদের অন্যান্য বছর এই টাকা দিতে হত অনেক বেশি। এ বছর কলকাতাতেও গ্রন্থাগার দফতরের উদ্যোগে বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে। নতুন বছরের ১৫ ফেব্র‍ুয়ারির পর অনুষ্ঠিত হবে। মন্ত্রী বলেন, প্রত্যেক বইমেলায় ৫০ থেকে ১০০ জন ঢোকার সুযোগ পাবেন। ১ ঘণ্টা থাকার পর তাঁদের বেরিয়ে আসতে হবে। পরবর্তীতে আবার ১০০ জন প্রবেশের অনুমতি পাবেন। স্টল থেকে ক্রেতাদের দূরত্ব থাকবে প্রায় সাড়ে তিন ফুট। ক্রেতাদের সঙ্গে বই বিক্রেতাদের সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only