সোমবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২০

ডেউচা-পাচামি কয়লা ব্লকের সামাজিক নিরীক্ষা শুরু, এলাকায় ঘুরলেন জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার

 


কৌশিক সালুই, বীরভূম:মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রস্তাবিত ডেউচা পাচামি কয়লা ব্লকের সামাজিক নিরীক্ষণ এর কাজ সরেজমিনে দেখতে এলাকায় হাজির হলেন বীরভূম জেলা শাসক ও জেলা পুলিশ সুপার। সোমবার জেলার দুই শীর্ষ আধিকারিক প্রস্তাবিত কয়লা শিল্পাঞ্চলের হরিণসিঙ্গাতে গিয়ে আদিবাসী সমাজের বাড়ি-বাড়ি ঘুরলেন এবং তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করলেন। যদিও এ বিষয় নিয়ে বিরোধীদের মত সবই বিধানসভা ভোটের মুখে রাজনৈতিক চমক।



       মাস কয়েক আগে কয়লা শিল্পাঞ্চল নিয়ে কয়লা শিল্পাঞ্চল নিয়ে ডেউচাতে রাজ্যের মুখ্য সচিবের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের পর কাজের অগ্রগতি শুরু হয়েছে। প্রস্তাবিত কয়লা শিল্পাঞ্চল এলাকার জমির বর্তমান মালিকানা নিরূপণ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। এখন শুরু হয়েছে সামাজিক নিরীক্ষণ এর কাজ। এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে মতামত গ্রহণ করা হচ্ছে এলাকাবাসীদের। ৮০ টি প্রশ্ন করা হচ্ছে সামাজিক নিরীক্ষণ দলের পক্ষ থেকে। আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে সেই কর্মসূচি সম্পন্ন হবে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। সেই সামাজিক কর্মসূচিতে এদিন বীরভূম জেলা শাসক বিজয় ভারতী এবং বীরভূম জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিং উপস্থিত হয়েছিলেন। ডেউচা পাচামি কয়লা শিল্পাঞ্চল এলাকার হরিণসিঙ্গা মৌজার মানুষের সঙ্গে সামাজিক নিরীক্ষণের সময় কথা বলেন তারা। 



প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে বহু মানুষজন তেমন উৎসাহের সঙ্গে এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছে আবার অনেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। অন্যদিকে গত রবিবার দেওয়ানগঞ্জ এলাকায় আদিবাসীদের একাংশ এই প্রস্তাবিত কয়লা শিল্পাঞ্চল এলাকার বিরোধিতা করে বৈঠক করেন। যদিও আদিবাসীদের এই বৈঠক কে আমল দিতে নারাজ আর এক আদিবাসী নেতা রবিন সরেন। তিনি বলেন," আদিবাসীরা কয়লা শিল্পাঞ্চল এর পক্ষে। সরকার সঠিক ও উপযুক্ত পুনর্বাসন দিয়ে জমি অধিগ্রহণ করবে এবং সেটা সাধারণ মানুষের অনুমতি সাপেক্ষে জোর করে নয়"। বীরভূম জেলা শাসক বিজয় ভারতী বলেন," যে সামাজিক নিরীক্ষণ এর কাজ চলছে তাতে সাধারণ মানুষের উৎসাহ যথেষ্ট যদিও কিছু সংখ্যক মানুষ এই নিরীক্ষণ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। জোর করে কোন কিছু সরকার করবে না যা হবে এলাকার মানুষের সম্মতিতে"।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only