রবিবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২০

কৃষক আন্দোলনে এখনও পর্যন্ত ২৯ জনের মৃত্য‍ু, আঙ‍ুল উঠছে সরকারের দিকে



নয়াদিল্লি, ২০ ডিসেম্বরঃ নতুন কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে গত নভেম্বর থেকে দিল্লি সীমানায় অবস্থান বিক্ষোভে শামিল হয়েছে হাজার হাজার কৃষক। তীব্র ঠান্ডাকে উপেক্ষা করেও তাঁরা নিজেদের দাবিতে অনড়। কিন্তু একদিকে এই হাড়হিম করা শীত এবং অন্যদিকে কেন্দ্রের উদাসীনতার কারণে কৃষকরা অহরহ মৃত্য‍ুর মুখে পড়ছেন। প্রতিকূল আবহাওয়ার জেরে এর আগেও আন্দোলনরত বেশ কয়েকজন কৃষকের মৃতু্য হয়েছে। কৃষক সংগঠনগুলির দাবি, নভেম্বরের থেকে এখনও পর্যন্ত আন্দোলনকারী ২৯ জন কৃষক প্রাণ হারিয়েছেন। কিন্তু তারপরেও ঠান্ডা উপেক্ষা করে খোলা আকাশের নীচেই বসে রয়েছেন বিক্ষোভরত কৃষকরা। এ দিকে এবার বেশ কয়েক বছরের রেকর্ড ভেঙে জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়েছে দিল্লিতে। সর্বনিম্ন গড় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রিরও নীচে। চলতি সপ্তাহে ভোরের দিকে সেই তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে শূন্য ডিগ্রিতে।


ফলে অতিরিক্ত ঠান্ডার জেরে অনেক কৃষক অসুস্থ হয়ে পড়ছেন এবং শীতজনিত কারণেই মারা যাচ্ছেন। এ পর্যন্ত দিল্লির সিঙ্ঘু সীমান্তে ২৯ জন কৃষকের মৃত্য‍ু পরিসংখ্যান কৃষক নেতারা নিশ্চিত করেছেন। এনবিটির রিপোর্ট অনুসারে, বুধবার ভীম সিংহ নামে এক বছর ৩৮-এর তরতাজা কৃষক সীমান্তের অন্ধকারে একটি খোলা ড্রেনে পড়ে গিয়ে মারা যান। তিনি পতিয়ালার বাসিন্দা ছিলেন বলে জানা যায়। এনবিটির সঙ্গে কথোপকথনে তাঁর সঙ্গে আসা দিলবাগ সিংহ নামে আর এক কৃষক জানিয়েছেন যে, ভীম সিংহ সকালে ঘুম থেকে উঠে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে নলের দিকে যায় এবং সেখানেই পড়ে গিয়ে মৃত্য‍ু হয় তার। 


অন্যদিকে, সন্ত বাবা রাম সিংহ বুধবার সিঙ্ঘু সীমান্তে আত্মহত্যা করেছিলেন। তাঁর অনুগামীরা জানিয়েছেন যে কৃষকদের অবস্থা দেখে তিনি অত্যন্ত ব্যথিত হন। এরপরে তিনি একটি সুইসাইড নোট লিখে নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। একইভাবে টিক্রি সীমান্তেও অনেক কৃষকের মৃত্য‍ু হয়েছে। এনবিটিকে কৃষক নেতা মহিপাল সিংহ বলেছেন যে, এখন পর্যন্ত ২৯ জন কৃষক মারা গেছেন। ২৬ তারিখ থেকে যেসব কৃষক পঞ্জাব, চণ্ডীগড় থেকে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে এবং পথেই শহিদ হয়েছে। ওইসব শহিদদের বলিদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। এনবিটির খবর অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত মৃতু্য হওয়া কৃষকদের তালিকা ইউনাইটেড ফারমার্স ফ্রন্ট প্রকাশ করেছে। 


এর মধ্যে রয়েছে বাবা রাম সিং, বাটার খান, লভ সিং, কুলবিন্দর সিং, গুরুপ্রীত সিং, গুরবিন্দর সিং, অজয় মোড়, ধন্ন সিং, গজ্জন সিং, গুরজন্ত সিং, কৃষ্ণ লাল, কিতাব সিং, লখবিন্দর সিং, সুখজিন্দর সিং, মেভা সিং, রামেমহর, গুরবচন সিং, গুরমেল কৌর, বলভিন্দর সিং, ভাগ সিং বড়োয়াল, গুরুদেব সিং, উত্তর সিং, জয় সিং, যতিন্দর সিং, গুরুপ্রীত সিং, ভীম সিং, জনক রাজ, কহন সিং, রণধীর সিং, হাজুরা সিং কৃষক আন্দোলনে প্রাণ হারিয়েছেন। তবে আর কতজন কৃষক মারা গেলে বা এই মৃত্য‍ুর তালিকাটি আর ঠিক কতটা বড় হলে সরকার এই কৃষি আইন প্রত্যাহার করবে, তা কারওর জানা নেই! 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only