বুধবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০২০

জল্পনার অবসান,বিধায়ক পদ ছাড়লেন শুভেন্দু অধিকারী, ইস্তফা ঘিরে জটিলতা



কলকাতা, ১৬ ডিসেম্বর : তৃণমূলের সঙ্গে পাকাপাকিভাবে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন শুভেন্দু অধিকারী। মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর বিধায়ক পদও ছাড়লেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক। এর পর স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে, শুভেন্দু কি তবে তৃণমূলের সদস্য পদ ছাড়তে চলেছে? যদি ছাড়েন তবে কবে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন?


নভেম্বরের ২৭ তারিখ মন্ত্রিত্ব ছেড়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তার আগে ছেড়েছিলেন, HRBC চেয়ারম্যানের পদ। তবে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন নি। শুভেন্দু অধিকারীর মান ভাঙাতে বৈঠক করেছিলেন তৃণমূল সাংসদ  সৌগত রায়। আশা প্রকাশ করেছিলেন সমস্যা মিটে যাবে। কিন্তু সেই বৈঠকের কথা মিডিয়াকে জানানোতে ক্ষোভ উগরে দেন শুভেন্দু। এরপর বেশ কয়েকটি অরাজনৈতিক সভা করেন তিনি। নিজের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে টু শব্দটি না করলেও বুঝিয়ে দেন ইঙ্গিতেই। তখন থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছিল তবে কি নন্দীগ্রামের এই বিধায়ক গেরুয়া শিবিরে পা রেখে রাজনৈতিক কেরিয়ারের দ্বিতীয় পর্ব শুরু করতে চলেছেন? সব জল্পনা সত্য প্রমাণিত করে বুধবার বিধায়ক পদ ছাড়লেন শুভেন্দু। 


তবে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বিধানসভায় না থাকায় সরাসরি তার হাতে ইস্তফা দিতে পারেননি তিনি। তিনি ইস্তফা জমা দেন বিধানসভার সচিবের কাছে। সুত্রের খবর, শুভেন্দুর ইস্তফা ঘিরে তৈরি হয় জটিলতা।

স্পিকারকে ইমেইল করে নিজের ইস্তফা পাঠিয়ে ছিলেন শুভেন্দু। স্পিকার জানিয়েছিলেন, বিধায়ক পদে ইস্তফা গ্রহণ করা হচ্ছে না। কারণ সচিবের ইস্তফা গ্রহণ করার কোনও এক্তিয়ার নেই। যেকোনও আইনসভার সদস্য কে তার ইস্তফা হাতে লিখে অধ্যক্ষের কাছে সশরীরে জমা দিতে হয়। এছাড়া স্পিকারের সামনে লিখতে হয় ইস্তফা পত্র। এর পাশাপাশি ইস্তফার বয়ান ঠিক ছিল না। কোন তারিখও উল্লেখ করা হয়নি ইস্তফা পত্রে। 


এদিকে শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার তিনি দিল্লি যাবেন। তারপর অমিত শাহের সঙ্গে ফিরবেন রাজ্যে। অমিতের বঙ্গ সফরে তিনি বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন। 


শুভেন্দুর ইস্তফার পর তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ১০ বছর সব ভোগ করার পর এখন পদত্যাগ অর্থহীন"। "দল দলের মতো চলছে। ওটা ওনার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।" শুভেন্দুর ইস্তফা ইস্যুতে মন্তব্য মন্ত্রী সুজিত বসুর।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only