বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০

অর্থনৈতিক কারণে আশ্রমিক সঙ্ঘকে ব্রাত্য করার অভিযোগ বিশ্ব ভারতীর বিরুদ্ধে



দেবশ্রী মজুমদার, শান্তি নিকেতন: পৌষমেলা না হওয়ায় আর্থিক কারণে ভাড়া চাওয়ায় অনুষ্ঠান থেকে পিছিয়ে গেল আশ্রমিক সঙ্ঘ। বিশ্বভারতীর সাথে বরাবর যুক্ত থেকেছে  শতাব্দী প্রাচীন আশ্রমিক সংঘ।  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সময় থেকে এই আশ্রমিক সংঘ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যুক্ত থেকেছে। ১৯২৩ সালের আশ্রম সংবাদ থেকে জানা যায়, "৯ পৌষ আশ্রমের মৃত ব্যক্তিদের শ্রদ্ধা বাসর ও খ্রীষ্টোৎসব উপলক্ষে মন্দিরে উপাসনা হয়। পূজনীয গুরুদেব (রবীন্দ্রনাথ) আচার্যের আসন হইতে একটি অতি সুন্দর মর্মস্পর্শী উপদেশ দিয়াছিলেন। তিনি আশ্রম বন্ধু পিযারসন সাহেবের কথা বিশেষ ভাবে স্মরণ করেন।" সেই পথ ধরেই ৯ পৌষ আম্রকুঞ্জে পরলোক গত আশ্রম বন্ধুদের স্মৃতি বাসরের ঐতিহ্য বহমান। 


তিন দিনের পৌষ উৎসবের অন্যতম অঙ্গ অবশ্যই ৭ পৌষ বিকেল ৩ টেয় শান্তিনিকেতন আশ্রমিক সংঘের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান এবং ৯ পৌষ সকালে পরলোকগত আশ্রমবন্ধু, আশ্রমিক, কর্মী, অধ‍্যাপক, পড়ুয়াদের স্মরণসভা আয়োজন করে আশ্রমিক সংঘ। বিশ্বভারতী সূত্রে জানা যায়, পৌষমেলা না হওয়ার সিদ্ধান্ত আগেই হয়ে যাওয়ার পরে পৌষউৎসব নিয়ে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ যে বৈঠকের আয়োজন করে তাতে আমন্ত্রণ জানানো হয় আশ্রমিক সংঘের সম্পাদক সুব্রত সেন মজুমদার সহ অন্যান্য প্রতিনিধি দের । কিন্তু ৫০০০ ভাড়া চাওয়ায় শান্তিনিকেতনের রতন পল্লীতে  আলাদা ভাবে আশ্রমিক সঙ্ঘ তাদের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সেখানে বক্তব্য রাখেন প্রবীন আশ্রমিক উমা সেন ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only