শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০২০

শিখ ধর্মগুরুর আত্মহত্যার কি প্রভাব পড়বে কৃষি আন্দোলনে?



নয়াদিল্লি, ১৮ ডিসেম্বরঃ কনকনে শীতের কুয়াশায় ফাঁকা দিল্লির রাস্তায় ঝুঁকি নিয়ে বেঁচে রয়েছেন কৃষকরা। এই দৃশ্য মেনে নিতে পারেননি। তাই প্রকাশ্য রাস্তায় নিজের শরীরে গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করলেন হরিয়ানা নিবাসী শিখ ধর্মগুরু বাবা রাম সিং। বুধবারের এই ঘটনার পর প্রশ্ন উঠছে, এর কি প্রভাব পড়বে শিখ সম্প্রদায়ের মধ্যে, বিশেষ করে আন্দোলনরত কৃষকদের মধ্যে? কিংবা সরকারের কি টনক নড়বে? তাঁর সুইসাইড নোটে সন্ত লিখে গেছেন, তিনি নিজেকে গুলি করেছেন কারণ আন্দোলনরত কৃষকদের দুঃখ-দুর্দশা তিনি সহ্য করতে পারছিলেন না। 


কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে তিনি নিজের মৃতু্যকে বেছে নিয়েছেন। তাঁর সুইসাইড নোটে আরও বলা হয়েছে, কেউ কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে এবং সরকারি অত্যাচারের প্রতিবাদে নিজের পুরস্কার ও সম্মান ফেরত দিয়েছেন। আজ আমি সরকারের অত্যাচারের প্রতিবাদে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছি। আমার আত্মহত্যা সরকারি অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ এবং কৃষকদের সমর্থনে আমার এই আত্মহনন। ওয়াহে গুরু জি কি খালসা, ওয়াহে গুরু জি কি ফতেহ। 


সন্ত বাবা রাম সিং শিখদের এক ধর্মীয় গুরু ছিলেন। যার প্রচুর অনুগামী রয়েছে হরিয়ানা এবং পঞ্জাবে। বিভিন্ন শিখ সংগঠনে তিনি একাধিক পদ অলংকৃত করেছিলেন। হরিয়ানার এসজিপিসি-র সঙ্গেও তিনি যুক্ত ছিলেন। প্রাথমিক খবরে প্রকাশ,যে বন্দুক দিয়ে তিনি নিজেকে গুলি করেছেন তার লাইসেন্স ছিল। সন্ত বাবা রাম সিংয়ের বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only