শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২০

করণদিঘিতে ‘দুয়ারে সরকারের’ মাধ্যমে হাতে-নাতে প্রতিবন্ধী শংসাপত্র

ইসলামপুরের মহকুমাশাসক সপ্তর্ষি নাগ


নিজস্ব প্রতিবেদক, ইসলামপুরঃ­ শুক্রবার করণদিঘিতে ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্পের মাধ্যমে শারীরিকভাবে অক্ষম প্রতিবন্ধীদের শংসাপত্র তুলে দেওয়া হল।  ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচিতে রাজ্য সরকারের নির্দিষ্ট ১১টি জনমুখী প্রকল্পে দ্রুত পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে। এতদিন প্রতিবন্ধী শংসাপত্র পেতে বহু কাঠগড় পোড়াতে হত। সূত্রের খবর, প্রতিবন্ধী শংসাপত্র পেতে মহকুমা কিংবা জেলাস্তরের হাসপাতালে আবেদন করতে হয়। আবেদনের ভিত্তিতে যে তারিখে আসতে বলা হত সেই তারিখে এসে আবেদনকারীকে মেডিক্যাল পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে হত। মেডিক্যাল পরীক্ষার পর আবেদনকারী যদি সত্যিই প্রতিবন্ধী হন তাহলে তাকে শংসাপত্র দেওয়া হয়। সবমিলিয়ে প্রক্রিয়াটি বেশ সময়সাপেক্ষ। ‘দুয়ারে সরকারের’ মাধ্যমে শহর ও গ্রামীণ এলাকায় দিকে দিকে জনসাধারণের সমস্যার সমাধান করা হচ্ছে। জানা গেছে, প্রতিবন্ধীদের চিকিৎসার জন্য শিবিরে এদিন বিশিষ্ট চিকিৎসকদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। প্রয়োজনে হাজির ছিল মেডিক্যাল বোর্ডও। 



ইসলামপুরের মহকুমাশাসক সপ্তর্ষি নাগ জানান,‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির মাধ্যমে আবেদনকারীদের সঙ্গে সঙ্গে পরীক্ষা করানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। পরীক্ষা শেষে প্রত্যেকের হাতে সেই শংসাপত্র তুলে দেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। আগামী ১৯ ডিসেম্বর গোয়ালপোখর-১ ব্লকের ঠিকরিবাড়ি হাইস্কুল এবং ২১ তারিখ গোয়ালপোখর-২ ব্লকের কানকি জৈন বিদ্যমন্দিরে ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের হাতে শংসাপত্র তুলে দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। এদিনের শিবির থেকে শংসাপত্র নিতে আসা রবিউল ইসলাম বলেন, এরআগে প্রতিবন্ধী শংসাপত্রের জন্য বহুবার অনেককে বলে হয়রানির শিকার হয়ে গিয়েছিলাম। ‘দুয়ারে সরকার’ এর মাধ্যমে কম সময়ের মধ্যে শংসাপত্র হাতে পেয়ে সত্যিই খুব ভালো লাগছে। এটি খুবই কাজে আসবে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only