রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০

রাগ কমাতে ৪৫০ কিমি. হাঁটলেন,লকডাউন ভঙ্গের দায়ে আটক স্বামীকে ফিরিয়ে নিয়ে গেলেন স্ত্রী



পুবের কলম ওয়েব ডেস্কঃ রাগ,অভিমান সবারই কমবেশি হয়। কিন্তু রাগের এমন বহর বা দীর্ঘমেয়াদি রাগ সচরাচর দেখা যায় না। ইতালির এক মাঝবয়সি ব্যক্তি স্ত্রীর সঙ্গে মনোমালিন্য হওয়ায় ৪৫০ কিমি. হেঁটেছেন। পদব্রজে এই দীর্ঘ অভিযানের উদ্দেশ্য হল রাগ কমানো। সুইৎজারল্যান্ডের সীমান্তবর্তী ইতালির উত্তরাঞ্চলের কোমা শহর থেকে হাঁটা শুরু করে তিনি রণেভঙ্গ দেন দক্ষিণাঞ্চলের আড্রিয়াটিক উপকূলের ফানো শহরে গিয়ে। তবে করোনার উপর্যুপরী প্রভাবে ইউরোপের এই দেশটিতে এখন কড়া লকডাউন জারি রয়েছে। সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত প্রতিদিন দেশজুড়ে লকডাউন চলছে। তাই লকডাউন ভেঙে রাস্তায় বেরনোর অপরাধে তাঁকে পুলিশ আটক করে। তা না-হলে হয়ত আরও অনেক পথ হেঁটেই যেতেন তিনি।

তাঁর মুখে এতটা পথ পাড়ি দেওয়ার ফিরিস্তি শুনে পুলিশ প্রথমে বিশ্বাস করতে পারেনি। তাঁর বাড়ির কাছাকাছি থানায় ফোন করলে জানা যায় সপ্তাহ খানেক আগে তাঁর স্ত্রী নিখোঁজ ডায়েরি করেছেন। তবে তাঁর পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ। জানা গিয়েছে, এই বয়সে এতটা পথ পায়ে হেঁটে অতিক্রম করায় বেশ  ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন ওই ব্যক্তি। একইসঙ্গে প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় কিছুটা কাবু হয়ে গিয়েছেন। কিন্তু এত ঠাণ্ডায় এতটা পথ হাঁটলেও তাঁর রাগ কমেনি কেন, তা বুঝতে পারেনি পুলিশ। জেরার মুখে তিনি বলেন, আমিও ভাবতে পারিনি যে এই বয়সে এতটা হাঁটতে পারব। তবে বিষয়টিকে অভিযান না বলে ভ্রমণ বলেছেন তিনি। রাগের মাথায় টাকা নিতে ভুলে যাওয়ায় পকেট গড়ের মাঠ হয়েছিল। তাই বাধ্য হয়ে পথচলতি মানুষের কাছে চেয়ে খেয়েছেন তিনি। দৈনিক গড়ে ৬০ কিমি. হেঁটেছেন। অষ্টম  দিনের মাথায় লকডাউন ভঙ্গের দায়ে পুলিশ তাঁকে আটক করে। স্থানীয় থানা থেকে খবর পেয়ে স্ত্রী তাঁকে গিয়ে ফানো শহর থেকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যান। তবে লকডাউন বিধিভঙ্গের দায়ে তাঁকে ৪০০ ইউরো জরিমানা দিতে হয়েছে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only