বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২০

করোনা রোগীর মৃতদেহ দাহ করাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা লাভপুরে




দেবশ্রী মজুমদার, লাভপুর, ০৩ ডিসেম্বর:  করোনা রোগীর মৃতদেহ দাহ করাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ালো এলাকায়। ঘটনাটি ঘিরে থানা ঘেরাও হয় বৃহস্পতিবার বীরভূমের লাভপুর থানার অন্তর্গত চৌহাট্টা ২ নম্বর অঞ্চলের পাথরঘাটা কেন্দুয়া গ্রামে।  যদিও মূল ঘটনার সূত্রপাত বেশ কয়েকদিন আগে। পাঁচ ছয়দিন আগে লাভপুরের এক করোনার রোগীর মৃতদেহ দাহ করা হয় গ্রাম থেকে দূরে এক শশ্মানে। মঙ্গলবার ছিল নবান্ন। তার পরের দিন পান্ত নবান্নের দিন, গ্রামবাসীদের একাংশের নজরে আসে শিয়াল কুকুরের টেনে আনা মৃতদেহের অর্ধদগ্ধ হাড়গোড়। তারপর উৎসবের মেজাজে থাকা মানুষজনের ক্ষোভ আছড়ে পড়ে গ্রামের বাসিন্দা তথা এলাকার দায়িত্বে থাকা সিভিক পুলিশের উপর। গ্রামের মধ্যে বুধবার একটি গাড়ি ঘোরাঘুরি করতে দেখে, সেদিন  রাতেই সিভিক পুলিশ সুকান্ত মণ্ডলের বাড়ি চড়াও হন তাঁরা। প্রথমে বচসা হয় উভয় পক্ষের। তারপর ওই সিভিক পুলিশের বাড়ি ভাঙচুর করা হয়। 

  তার জেরে দুই জন গ্রামবাসীকে আটক করে লাভপুর থানার পুলিশ। তারপর বৃহস্পতিবার সকালে আটক গ্রামবাসীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা।  গ্রামবাসীদের অভিযোগ, করোনায় আক্রান্ত রোগীর মৃতদেহ দাহ করা হয়। কিন্তু সেই দেহ সম্পূর্ণভাবে দাহ করা হয়নি। শ্মশান সংলগ্ন যাতায়াত পথে পড়ে থাকতে দেখা যায় করোনাই মৃত দেহের অংশ। ওই গ্রামে দায়িত্ব থাকা সিভিক ভলেন্টিয়ার সুকান্ত মন্ডল কে গ্রামবাসীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়। গ্রামবাসীদের অভিযোগ ওই সিভিক ভলেন্টিয়ার উপযুক্ত ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টে গ্রামবাসীদের হুমকি দেয়। এরপর ভলেন্টিয়ার সুকান্ত মন্ডল এর বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only