সোমবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২০

সংহতি দিবসে ঐক্যের শপথ মমতার



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ ভারতীয় সংবিধানের মূল বৈশিষ্ট্য, বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য। নানান ভাষা, নানা সম্প্রদায়ের দেশ ভারতবর্ষ। তবে এই বিভিন্নতা এ যাবৎকাল ভারতকে আলাদা করতে পারেনি। বরং সব সম্প্রদায়, সব সংস্কৃতি ও ভাষা এখানে লালিত হয়েছে পরম স্নেহে।  সংবিধান প্রণেতা বি আর আম্বেদকর, এই বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের কথাই বলে গিয়েছেন সংবিধানের বিভিন্ন প্রচ্ছদে। তাই সংবিধানপ্রণেতার জন্মদিনেই বিবিধের মধ্যে মিলনের বার্তা দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনিতেই প্রতিবছর দিনটিকে সংহতি দিবস হিসেবে পালন করে তৃণমূল কংগ্রেস। কেন্দ্রীয়ভাবে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো স্বয়ং। কিন্তু এ বছর এই সংহতি দিবসের কার্যক্রমকে তিনি ছড়িয়ে দিয়েছেন ব্লকে ব্লকে। দলনেত্রীর নির্দেশ বিভিন্ন ধর্মের মানুষকে নিয়ে ৬ ডিসেম্বর দিনটিকে যেন পালন হয়েছে ব্লকস্তরে। এই ৬ ডিসেম্বর দিনটি আরও একটি কারণেই তাৎপর্যপূর্ণ। এই দিনই বাবরি মসজিদ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল। যদিও দেশের শীর্ষ আদালতের রায়ে সেই জমিতেই এখন তৈরি হচ্ছে রাম মন্দির। রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করেন, এখনও সংখ্যালঘুদের মনে বাবরি মসজিদ ভাঙার সেই স্মৃতি দগদগে। কিন্তু বাংলার মুখ্যমন্ত্রী চান, তাঁর রাজ্যে ধর্ম,মন্দির বা মসজিদ নামে বিভাজন যেন না হয়, বরং তাঁর নীতি সকলকে নিয়ে চলা। তাই ভারতবর্ষের মূল্য বৈচিত্র্য যে তার বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য এ দিন সংহতি দিবসে তা তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন। এবং একেই সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে তিনি রবীন্দ্রনাথের লাইন উদ্ধৃত করে লিখেছেন, ‘নানা ভাষা, নানা মত, নানা পরিধান,বিবিধের মাঝে দেখো মিলন মহান’।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only