শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২০

বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ‘দুয়ারে বাংলা’ কর্মসূচির সুবিধা দিলেন মন্ত্রী জাভেদ খান



আবদুল ওদুদঃ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে রাজ্যজুড়ে শুরু হয়েছে ‘দুয়ারে সরকার’। গোটা রাজ্যে সমস্ত মানুষ যাতে সরকারের ১১টি প্রকল্পের যাবতীয় সুবিধা পায়, তারজন্য প্রত্যেক পাড়ায় পাড়ায় সরকারি কর্মী এবং স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ করছে। বৃহস্পতিবার কলকাতার কসবা বিধানসভা কেন্দ্রের ৬৬ নম্বর ওয়ার্ডে প্রথম পর্যায়ের দুয়ারে বাংলা কর্মসূচি শুরু হয়েছে। সকাল থেকেই কয়েক হাজার মানুষ স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী জাভেদ আহমেদ খান তদারকি শুরু করেন। তপসিয়া এলাকায় এ দিন এক ভিন্ন চিত্র দেখা গেল। মন্ত্রী জাভেদ আহমেদ খান এবং ফৈয়াজ আহমেদ খান এক বৃদ্ধ মহিলাকে রিকশাতে করে বাড়ি থেকে নিয়ে এনে বাধ্যক্য ভাতার কার্ড তৈরি করেছেন। পাশাপাশি ওই মহিলার স্বাস্থ্যসাথী কার্ডেরও আবেদন করিয়ে দিলেন। বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষকে সচেতনতারও কাজ করলেন তিনি। সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রীদের মতো কেবলমাত্র ভাষণ দিয়ে যান না। তিনি কাজ করতে ভালোবাসেন। আর সেই কাজ করতে আমরা আজ ময়দানে নেমে পড়েছি। মন্ত্রী বলেন, মুখ্যমন্ত্রী ১১টি প্রকল্পের সমস্ত সুবিধা যাতে বাড়িতে বসেই পান, তারজন্য শুরু হয়েছে। আজ ফর্ম নিয়ে গিয়ে দ্বিতীয় দফার দিনও জমা করা যাবে। প্রত্যেক মানুষ এই পরিষেবা পাবেন। কেউ ভাববেন না আমার হবে না। মন্ত্রী বলেন, ৬৬ ওয়ার্ড এবং কসবা বিধানসভার প্রত্যেক মানুষের পাশে আমরা রয়েছি। কাজেই প্রত্যেক ব্যক্তি সমস্ত সুবিধা পাবেন। 

কাউন্সিলর ফৈয়াজ আহমেদ খান বলেন, প্রত্যেক মানুষ এই কর্মসূচির আওতায়। প্রত্যেকে যাতে, খাদ্যসাথী,স্বাস্থ্য সাথী, কন্যাশ্রী,যুবশ্রী,ঐক্যশ্রী,জয়জোহার-সহ ১১টি প্রকল্পের সুবিধা পায় তারজন্য কাজ চলছে। তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের অভিভাবক। তিনি সকলের জন্য কাজ করেন আজও করবেন। রাজ্যের ৯ কোটি মানুষের নেত্রী তিনি। আর নেত্রীর এই কর্মসূচি প্রত্যেক মানুষের মধ্যে পৌঁছে দিতে চলছে কাজ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only