শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০

কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই কোভিড প্রতিষেধক মিলবে, সর্বদলীয় বৈঠকে মোদির কণ্ঠে আশ্বাসের সুর



নয়াদিল্লি, পুবের কলমঃ ­বিশেষজ্ঞদের বিশ্বাস, কোভিড ভ্যাকসিন পরবর্তী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই প্রস্তুত হয়ে যাবে। টিকা প্রস্তুত হওয়ার পর বিজ্ঞানীদের অনুমতি পেলেই দেশে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হবে। শুক্রবার সর্বদলীয় বৈঠকে বিরোধী নেতাদের এভাবেই আশ্বস্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দিনকয়েক আগে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছিল, সারাদেশে কেন্দ্র সরকার টিকাকরণ কর্মসূচি হাতে নেবে এমন কথা কখনোই বিজেপি সরকার বলেনি। তারপর দেশজুড়ে নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। রাহুল গান্ধি তীব্র আক্রমণ করেন মোদিকে। অভিযোগ করেন, বিজেপি সরকার বারবার কথা দিয়ে কথা পালটাচ্ছে। এ দিনের সর্বদলীয় বৈঠকে সেই ক্ষোভকেই প্রশমন করতে চাইলেন নরেন্দ্র মোদি। তাই ভ্যাকসিনের আশার কথা যেমন শোনালেন, তেমনি শোনালেন দেশজুড়ে টিকাকরণের প্রতিশ্রুতিও।

এ দিনের বৈঠকে তিনি বলেন, আমাদের বিজ্ঞানীরা কোভিড টিকা তৈরির ব্যাপারে খুবই আত্মবিশ্বাসী। সবথেকে সস্তা এবং নিরাপদ ভ্যাকসিন পাবার জন্য হন্যে হয়ে খুঁজছে বিশ্ব। তিনি এ দিন প্রতিষেধক বিতরণ এবং এ ব্যাপারে যে প্রশাসনিক কাজকর্ম, সে বিষয়ে জানান, এ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে জাতীয় বিশেষজ্ঞ দলকে। প্রত্যেক মুহূর্তে পরামর্শ নেওয়া হবে বিশেষজ্ঞদের। অল্প সময়ের মধ্যে বৃহৎ পরিমাণ প্রতিষেধক প্রস্তুত করতে পারবে ভারত। সে ক্ষমতা আমাদের দেশের রয়েছে। অন্য দেশের তুলনায় আমাদের দেশের প্রস্তুতকারী ক্ষমতা বেশি বলে তিনি জানান। মহামারি শুরু হওয়ার পর এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সর্বদলীয় বৈঠক করলেন মোদি। তবে ভ্যাকসিনের মূল্য নেওয়া হবে কি না, সে বিষয়ে তিনি এ দিন জানান যে, ভ্যাকসিনের মূল্য কত হবে সে বিষয়ে রাজ্যগুলির সঙ্গে কেন্দ্র কথা বলছে এবং তারপর এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে জনস্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই সবকিছু বিবেচনা করা হবে। যেসব সম্মুখ স্বাস্থ্যকর্মীরা এই কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সাহায্য করছেন, এ ছাড়া সাফাই কর্মী, পুলিশ, তাদের প্রত্যেককে আগে টিকা নেওয়ার সুযোগ দিতে হবে বলে মোদি জানান। কোভিড নিয়ে আশার কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, কয়েকটি দেশের মধ্যে ভারত হচ্ছে একটি দেশ যেখানে টেস্টিং ও আরোগ্যের হার খুবই বেশি। অনেক উন্নত দেশ কোভিডকে হারাতে পারেনি যেখানে ভারত অনেকটাই প্রতিরোধ করতে পেরেছে। অনেক জীবন রক্ষা পেয়েছে এখানে। তিনি সমস্ত রাজনৈতিক দলের কাছে আবেদন জানান, আপনারা মানুষকে সচেতন করুন এবং তাদেরকে গুজবের হাত থেকে বাঁচান। টিকার ব্যাপারে যাতে কোনও গুজব ছড়িয়ে না পড়ে সে ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। এ দিনের ভার্চুয়াল বৈঠকে বিরোধী দলীয় নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যসভায় বিরোধী দলের নেতা গুলাম নবী আজাদ, তৃণমূল কংগ্রেসের সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, এনসিপির শরদ পাওয়ার প্রমুখ। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন এই ভার্চুয়াল মিটিংয়ে হাজির ছিলেন।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only