বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২০

‘বাংলার উন্নয়নে অবাঙালিদের অবদান বেশি’:দিলীপ ঘোষ




পুবের কলম প্রতিবেদকঃ­ বেফাঁস আর আলটপকা মন্তব্যে বঙ্গ রাজনীতিতে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের জুড়ি মেলা সত্যিই ভার। তিনি মুখ খুললেই বিতর্ক। তিনি মুখ খুললেই নেট দুনিয়া হাসির খোরাক পায়। আর দল পড়ে বিড়ম্বনা আর অস্বস্তিতে। কিন্তু তাতে কী! ‘চোরের যেমন ধর্মের কাহিনি’তে মন থাকে না, তেমনই নিজেকে সংযত করার কোনও চেষ্টাই নেই পদ্ম শিবিরের রাজ্যের সেনাপতির। 

তৃণমূলের ‘বহিরাগত’ তত্ত্ব খারিজ করতে গিয়ে বুধবার নতুন বিতর্ক বাঁধিয়ে বসেছেন দিলীপ ঘোষ। ‘সবজান্তা’ রাজ্য বিজেপি সভাপতির আজব দাবি, ‘বাংলার যা বিকাশ হয়েছে, তাতে বাঙালিদের চেয়ে বাংলার বাইরের লোকেদের অবদানই বেশি।’ এমন আজব-উদ্ভট দাবির পিছনে তাঁর যুক্তি, ‘আজ নয় ২০০ বছর আগে থেকে সেই ব্রিটিশ আমলে থেকে রোজগারের জন্য বাইরের মানুষ বাংলায় এসেছেন। গঙ্গার পাড়ে জুটমিলে বেশিরভাগ বাংলার বাইরের মানুষ কাজ করতেন। বাংলায় যা উন্নয়ন হয়েছে তাতে বাঙালিদের থেকে অবাঙালিদের অবদান বেশি।’ বাঙালিকে এভাবে খাটো করে দেখিয়ে মূলত অবাঙালিদের মনজয়ের চেষ্টা করলেন কেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি? 

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা অবশ্য দিলীপের মন্তব্যে খুব একটা বিস্মিত নন। তাঁদের মতে, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যতই নকল বাঙালি সেজে, টেলিপ্রম্পটারে লেখা ভাষণ পড়ে বাঙালির মন জয়ে চেষ্টা করুন না কেন, বিজেপি তো অবাঙালি বেনিয়ার দল। বেনিয়াদের কাছে দলের টিঁকি বাঁধা। বিজেপি রাজ্য সভাপতি সেই বেনিয়াদের মোসাহেবি করতে গিয়েই এমন মন্তব্য করেছেন।’ নেট নাগরিকরা অবশ্য বলছেন, ‘গরুর দুধে সোনা পাওয়ার মতো ‘পাগলের তত্ত্ব’ যিনি হাজির করতে পারেন, তিনি যে বাংলার উন্নয়নে অবাঙালিদের অবদান বেশি দেখবেন, তাতে বিস্ময়ের কিছু নেই। দিলীপের মতো ‘অতি শিক্ষিতে’র কাছ থেকে এমন মন্তব্যই স্বাভাবিক। তবে এই প্রথম নয়। এর আগে তৃণমূলের ‘বহিরাগত’ খোঁচার পালটা দিতে গিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতির বক্তব্য ছিল, তৃণমূল যদি বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের বহিরাগত বলেন, তবে শাহরুখ খান কী?’

এ দিন ক্যানিং স্ট্রিটে চায়ে পে চর্চা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে দিলীপের এমন অবাঙালি ভজনা নিয়ে বঙ্গ বিজেপির অন্দরেই ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতার কথায়, ‘একা দায়িত্ব নিয়েই বিধানসভা ভোটকে দলকে ডোবাবেন আমাদের রাজ্য সভাপতি।’

রাজ্যের জনকল্যাণমূলক প্রকল্পকে সাধারণ মানুষের হাতের নাগালে পৌঁছে দিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে যে ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি’ শুরু হয়েছে, তা যে বিজেপি শীর্ষনেতৃত্বের বঙ্গ দখলের স্বপ্ন ভেঙে খানখান করে দিতে পারে, তা বুঝতে পেরে এ দিন ওই কর্মসূচির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন বঙ্গ বিজেপি সভাপতি। হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘নির্বাচনের আগে রাজ্যের প্রকল্পের নামে দলের প্রচার হলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রয়োজনে নির্বাচন কমিশনে যাওয়া হবে।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only