বুধবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২০

দেশজুড়ে টিকাকরণের কোনও প্রতিশ্রুতি দেয়নি কেন্দ্র, দাবি স্বাস্থ্য মন্ত্রকের




পুবের কলম প্রতিবেদকঃ করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরি এবং উৎপাদন প্রক্রিয়া পর্যালোচনার জন্য শনিবার দেশের তিনটি শহরে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রথমে আমদাবাদের জাইডাস বায়োটেক পার্কে যান। সেখান থেকে হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেক হয়ে পুণের সিরাম ইন্সটিটিউট অফ ইন্ডিয়ায় যান মোদি। দেশে করোনা সংক্রমণ ফের বাড়ছে। এ অবস্থায় টিকার বিকল্প নেই। কিন্তু মঙ্গলবার এক অদ্ভুত বিবৃতি দিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। তারা স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে, পুরো দেশকে টিকাকরণ করার কথা সরকার কখনোই বলেনি। আমরা যদি সংকটজনক রোগীদের টিকা দিই এবং ভাইরাস সংক্রমণের শৃঙ্খল ভেঙে দিতে সক্ষম হই, তবুও সমগ্র জনসংখ্যার টিকাকরণ সম্ভব নয়। এমনটাই জানিয়েছেন স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণ। 

এ দিকে মোদি ৪ ডিসেম্বর সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছেন করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করার জন্য। সেখানে টিকাকরণের বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে বলে মনে করা হচ্ছিল। কিন্তু কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে এহেন মন্তব্য দায় এড়ানো বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। দেশে সংক্রমণ ৯৪ লক্ষ পার হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ন’টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড আক্রান্ত হয়েছে ৩১,১১৮ জন। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্র টিকাকরণ নিয়ে হাত ধুয়ে ফেলতে চাইছে। এর আবার বেসরকারীকরণ হবে নাকি, সন্দেহ প্রকাশ করছেন অনেকে। তবে প্রধানমন্ত্রী যখন টিকা তৈরির প্রস্তুতি দেখতে গিয়েছিলেন, তারপর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছিল, এখনও পর্যন্ত যে গতিতে দেশীয় টিকার তৈরির প্রক্রিয়া এগিয়েছে, তাতে গর্ববোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। টিকা তৈরির ক্ষেত্রে ভারত কীভাবে যাবতীয় নীতি মেনে চলছে, তা নিয়েও কথা বলেন তিনি। একইসঙ্গে টিকা বণ্টন প্রক্রিয়া আরও উন্নত করার জন্য পরামর্শ চান। বণ্টন প্রক্রিয়ার ব্যাপারটা তখন মোদির মাথায় ছিল। তাই হঠাৎ করে নিশ্চয় সেটা বিশ বাঁও জলে যাবে না, মত ওয়াকিফহাল মহলের।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only