বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০

১০ বছরে জিডিপি বেড়েছে ৫৩ শতাংশ, শিল্প বৃদ্ধির হারে দেশে পঞ্চম বাংলাঃ সৌগত



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ রবিবার রীবভূমে মেগার্ যালি থেকে রাজ্যের অনুন্নয়ন নিয়ে তৃণমূলকে আক্রমণ করেছিলেন কেন্দ্রীয়  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  অমিত শাহ। মঙ্গলবার, তৃণমূল ভবন থেকে সাংবাদিক সম্মেলন করে সংঘাতের পারদ চড়িয়ে জবাব ফিরিয়ে দিল তৃণমূলও। এদিন দমদমের সাংসদ সৌগত রায় অমিত শাহের দাবি খারিজ করে বলেন, মিথ্যাচার করছেন কেন্দ্রীয়  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী । গত দশ বছরে রাজ্যের অভাবনীয় উন্নতি হয়েছে। সামগ্রিক উন্নয়নে দেশের মধ্যে অগ্রণী রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ। বেড়েছ বাংলার জিডিপিও।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিভিন্ন বক্তব্য কতটা সারবত্তাহীন তা বোঝাতে গিয়ে সৌগত রায় বলেন, গত ১০ বছরে তৃণমূলের শাসনামলে রাজ্যের জিডিপি ৫৩ শতাংশ বেড়েছে। মাথা পিছু আয়ও বেড়েছে রাজ্যে। শিল্পোৎপাদন বেড়েছে ৬০ শতাংশ। শিল্পের রাজ্যের বৃদ্ধির হার ৩.১ শতাংশ যা দেশে পঞ্চম। তিনি আরও বলেন, ‘অমিত শাহ বলছেন পাটশিল্পের অবস্থা খারাপ। অথচ, ৭ কোটি পাটের ব্যাগ কেনার বরাত দেওয়া হয়েছে। তিনি মনে করিয়ে দেন, ‘শিল্পবৃদ্ধিতে বাংলা পঞ্চম স্থানে।’

সৌগত যোগ করেন, ‘পরিষেবা ক্ষেত্রে ৭২ শতাংশ বেড়েছে। ১ হাজার ১১৮ কিলোমিটার গ্রামীণ রাস্তা তৈরি হয়েছে। হাসপাতালে বেডের সংখ্যা বৃদ্ধিতে বাংলা সর্বোচ্চ। নার্সের সংখ্যা বেড়েছে ৫১ শতাংশ।’

তৃণমূল সাংসদ আরও বলেন, ‘একশো শতাংশ বিদ্যালয়েই বিদ্যুৎ আছে। তিরিশটি নতুন বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হয়েছে। কৃষক বন্ধু প্রকল্পে একর প্রতি বার্ষিক ৫ হাজার টাকা দেওয়া হয়।’

নারী নির্যাতন ইস্যুতে বিজেপি শাসিত রাজ্য উত্তরপ্রদেশের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের তুলনা টেনে এনে সৌগত বলেন, ‘২০১৪-২০১৯ উত্তরপ্রদেশে মহিলাদের ওপর অত্যাচার বেড়েছে। বাংলার নারী নির্যাতনের পরিসংখ্যান ২১ শতাংশ কমেছে।’

অমিত শাহর বিরুদ্ধে ভুল তথ্য পরিবেশন করার অভিযোগও তোলেন সৌগত। বলেন, শিল্পখাতে গত দশ বছরে ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি হয়েছে বাংলায়। শিল্পখাতে গত দশ বছরে ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি। মাথাপিছু আয়ের নিরিখে বাংলা এগিয়ে।’

তিনি যোগ করেন, ‘স্বাস্থ্যসাথীর সুফল পেয়েছে ১.৪ কোটি পরিবার। রাজ্যে বিদেশি বিনিয়োগ ২৪ শতাংশ বেড়েছে।’

শুভেন্দু অধিকারী নিয়ে মুখ খোলেন সৌগত। বলেন, শুভেন্দু অধিকারীর কোনও গড় আছে কি না জানি না। শুভেন্দু বিজেপির অনেক মুখের মধ্যে একটি মুখ। আমরা খেয়াল রাখব ওর সভায় কীরকম মানুষ আসে।’

তিনি জানান, ‘নাড্ডার ওপরে হামলার ঘটনায় সরকার তদন্ত চালাচ্ছে। এই ঘটনায় কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে।’ প্রশান্ত কিশোর নিয়েও দলের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে। এ প্রসঙ্গে প্রশান্ত বলেন, ‘প্রশান্ত কিশোর একজন কনসালট্যান্ট। তাঁর কাছে পেশাদারী সাহায্য নেওয়া হয়েছে। মোদিও ওনার সাহায্য নিয়েছিলেন।’


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only