বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২০

বেদখল হয়ে যাওয়া পার্টি অফিস পুনরুদ্ধার করল তৃণমূল


 


পুবের কলম প্রতিবেদক: কাঁথি­ শহর জুড়ে নিজেদের দলীয় কার্যালয় পুনরুদ্ধার করা শুরু করল তৃণমূল কংগ্রেস। আর সেই ঘটনাকে ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়াল। 

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি পুরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের রুপশ্রী সিনেমা হলের কাছে ব্যবসায়ী সমিতির অফিসকে ‘দাদার অনুগামী’র সহায়তা কেন্দ্র হিসেবে চালু করে শুভেন্দু অনুগামীরা। তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত কনিষ্ক পন্ডার নেতৃত্বে এই কেন্দ্র চালু হয়। সেই কেন্দ্রকেই বৃহস্পতিবার তৃণমূল নেতা তরুণ জানার নেতৃত্বে উদ্ধার করল তৃণমূল।

তবে শুধু ৮ নং ওয়ার্ড নয়, ৯ নং ওয়ার্ডেও তৃণমূলের ‘বেদখল’ হওয়া পার্টি অফিস পুনরুদ্ধার করল তৃণমূল। রাজ্য যুব তৃণমূলের সহ সভাপতি সুপ্রকাশ গিরির নেতৃত্বে এইসব অফিস পুনরুদ্ধার করা হয়।

কাঁথির মেচেদা বাইপাসে তৃণমূল পরিচালিত ব্যবসায়ী সমিতির অফিসটি সম্প্রতি কণিষ্ক পণ্ডার নেতৃত্বে গেরুয়া রং করে ‘শুভেন্দু অধিকারীর সহায়তা কেন্দ্র’ করা হয়। তৃণমূল সদস্যরা এদিন সদলবলে এসে সেই অফিসে সাদা রং করে দেয়। শুভেন্দু অধিকারীর খাসতালুকে ঘটা এমন ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। যদিও এই অফিসের দায়িত্বে থাকা নেতা কনিষ্ক পণ্ডা বলেন, গায়ের জোরে তৃণমূল এই কাজ করছে। গণতান্ত্রিক ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অন্যদিকে, ব্যাবসায়ী সমিতির সদস্য কৃষ্ণেন্দু খামারি বলেন যে, তাদের অন্ধকারে রেখেই সমিতির সম্পাদক কনিষ্ক পন্ডা নিজের ইচ্ছামত অফিসের রং বদলে ‘শুভেন্দু অধিকারীর সহায়তা কেন্দ্র’ চালু করেছিল। এই সদস্য আরও বলেন যে, কেউ নিজের মত বদলাতেই পারেন, কিন্তু সেই মত কারো উপরে চাপিয়ে দিতে পারেন না। সংগঠনের সভাপতি সন্তোষ বাগ বলেন যে, তাদের সংগঠন অরাজনৈতিক সংগঠন। সব রাজনৈতিক দলের কর্মীরা এখানে উপস্থিত আছেন। তাই এইভাবে কাউকে না জানিয়ে সমিতির অফিসকে কারো ব্যাক্তিগত সহায়তা কেন্দ্র চালু করা উচিত হয়নি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only