মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০

ভ্যাকসিন বিতর্কে সিরাম ইন্সটিটিউটের সাফাই




নয়াদিল্লি, ১ ডিসেম্বরঃ চেন্নাইয়ে করোনা ভ্যাকসিন ট্রায়ালের সময় এক স্বেচ্ছাসেবীর ‘ভার্চুয়াল নিউরোলোজিক্যাল ব্রেকডাউন’ সহ একাধিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। ভ্যাকসিনটি সিরামের মান্যতাপ্রাপ্ত হওয়ায় এ নিয়ে চরম বিতর্ক শুরু হয়েছে। সিরাম ইন্সটিটিউট অফ ইন্ডিয়া মঙ্গলবার অক্সফোর্ড করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনকে ‘সুরক্ষিত ও প্রতিরোধ ক্ষমতাশালী’ বলে মান্যতা দেয়। কিন্তু চেন্নাইয়ে একজন ট্রায়াল ভলেন্টিয়ারের ওপর এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করলে তাঁর নানান পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। 

আদার পুনাওয়ালা সংস্থা তাদের বয়ানে বলেন, ‘চেন্নাইয়ে স্বেচ্ছাসেবীর সঙ্গে যে ঘটনা ঘটেছে তা দুর্ভাগ্যজনক তবে এ ঘটনা ভ্যাকসিনের কারণে হয়নি।’ সংস্থাটি জানায়, এই অভিযোগকে মিথ্যা এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে জানায়। এমনকী ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকার মানহানির মামলা করা হবে বলেও জানায়। 

স্বেচ্ছাসেবীর সঙ্গে ঘটনাটি ‘গুরুতর প্রতিকূল প্রভাব’ বর্ণনা করে সিরাম জানায়, ঘটনাটি দুর্ভাগ্যজনক, কিন্তু এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াটির কারণ ভ্যাকসিন নয়, ‘কোভিশিল্ড’ ভ্যাকসিন পুরোপুরি সুরক্ষিত এবং প্রতিরোধক্ষমতাসম্পন্ন।’

উল্লেখ্য যে চেন্নাইয়ে ৪০ বছরের এক ব্যক্তির ওপর কোভিড ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ে অংশ নিয়েছিলেন। ১ অক্টোবরে তাঁকে একটি ডোজ দেওয়ার পর শরীরে মারাত্মক বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ায় ওই ব্যক্তি সংস্থার বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণের মামলা দায়ের করে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only