রবিবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২১

কাশ্মীরে ‘ভুয়ো’ এনকাউন্টার, ও পি সাহার চিঠি প্রধানমন্ত্রীকে




পুবের কলম প্রতিবেদকঃগতবছর (২০২০) ৩০ ডিসেম্বর শ্রীনগরের লয়াপোরা এলাকায় ভারতীয় সেনার ০২ রাষ্ট্রীয় রাইফেল ইউনিটের বিরুদ্ধে তিন কাশ্মীরি যুবক আজাজ মকবুল গণি, আতার মুস্তাক ওয়ানি ও জুবেইর আহমেদ লোনকে খতম করার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ, ভুয়ো এনকাউন্টারে তাদের হত্যা করা হয়েছে। আর এই অভিযোগ নিয়েই এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিলেন প্রখ্যাত সমাজকর্মী তথা ‘সেন্টার ফর পিস অ্যান্ড প্রগ্রেস’-এর চেয়ারম্যান ও পি সাহা।

চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীকে তিনি লিখেছেন, ‘আমি ২০২০ সালের ৩০ ডিসেম্বর শ্রীনগরের লয়াপোরা এলাকায় ভারতীয় সেনার ০২ রাষ্ট্রীয়  রাইফেল ইউনিটের হাতে তিন কাশ্মীরি যুবক আজাজ মকবুল গণি, আতার মুস্তাক ওয়ানি ও জুবেইর আহমেদ লোনকে হত্যার ঘটনা নিয়ে আমি আমার উদ্বেগের কথা জানাতে চিঠিটি লিখছি। আমি ভারত সরকার ও জম্মু-কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল প্রশাসনকে অনুরোধ করব এই এনকাউন্টারের ঘটনার একটি স্বাধীন ও নিরপেক্ষ তদন্ত করার জন্য যাকে নিহতর পরিবারের সদস্যরা ‘ভুয়ো এনকাউন্টার’ বলে অভিযোগ করছেন। আর নিহতদের এই পরিবারের দাবিই জোরালো হচ্ছে একাধিক সংবাদমাধ্যমের সাম্প্রতিক রিপোর্ট থেকে।’ 

মিডিয়া রিপোর্টগুলিও নিজের চিঠিতে উল্লেখ করেছেন সমাজকর্মী সাহা। রিপোর্টগুলি নিম্নরূপ,

১. নিহতদের কারও বিরুদ্ধে কোনও পুলিশি রেকর্ড ছিল না। তারা যে রাজনৈতিকভাবে সক্রিয় ছিল এমন কোনও রিপোর্টও নেই পুলিশ-প্রশাসনের কাছে।

২. পুলিশের ডেটাবেসে (তথ্য) সক্রিয় জঙ্গিদের যে তালিকা রয়েছে, তাতে এই নিহত কাশ্মীরিদের মধ্যে কারও নাম নেই।

৩. নিহতদের পরিবারের সদস্যদের দিয়ে ‘জঙ্গি’দের আত্মসমর্পণ করতে বলার জন্য কোনও ধরনের চেষ্টাই করেনি নিরাপত্তা আধিকারিকরা।

৪. সাধরণত দেখা যায়,মৃত্যুশয্যায় থাকা জঙ্গিরা অন্তিম সময়ে তাদের পরিবারের লোকদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে। এটা অত্যন্ত আশ্চর্যের যে এক্ষেত্রে নিহতদের একজনও তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেনি। 

৫. মৃতদেহগুলি তাদের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য যে দাবিগুলি নিহতদের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে সরকারের উচিত সহানুভূতির সঙ্গে তা বিবেচনা করা।

৬. আমরা যদি কাশ্মীরিদের হৃদয় ও মন জয় করতে পারি তাহলে ‘ভুয়ো এনকাউন্টার’ পুরোপুরি বিলোপ হয়ে যাবে। আর তাই এটা ভারত সরকারের ও তাদের নিরাপত্তারক্ষীদের এটা অবশ্য উচিত কোনও সন্দেহজনক এনকাউন্টার হলে তার পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করার জন্য এবং এটা নিশ্চিত করা যাতে নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে কোনও বেআইনি হত্যা হলে যেন সময়ের মধ্যে ন্যায়বিচার মেলে।   


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only