বুধবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২১

বিহারে মূক ও বধির কিশোরীকে গণধর্ষণ, দু'চোখে ধারালো অস্ত্রের আঘাত



পাটনা, ১৩ জানুয়ারি: উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশের পর এবার বিহার। ফের গণধষর্ণের ঘটনা। যৌন লালসার শিকার হতে হয়েছে এক মূক ও বধির কিশোরীকে। ধর্ষকদের যাতে সনাক্ত করতে না পারে, সেইজন্য তার দু'চোখে ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাতের অভিযোগ উঠেছে ধর্ষকদের বিরুদ্ধে। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য নীতীশ কুমারের রাজ্যের মধুবনী জেলাতে।

ঠিক কী হয়েছিল ঘটনাটি? গ্রামপ্রধান রাম ইকবাল মণ্ডল জানিয়েছেন, মঙ্গলবার ছাগল চরাতে মাঠে গিয়েছিল বছর ১৫-র ওই কিশোরী। তার সঙ্গে ছিল আরও বেশ কিছু বাচ্চা। সেখান থেকেই তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করা হয়। মনোহরপুকুর গ্রামে তাকে অচৈতন্য অবস্থায় দেখতে চায় তার সঙ্গে মাঠে থাকা এক বাচ্চা। খবরটি সে নির্যাতিতার পরিবারকে জানায়। কিশোরীর পরিবার তাকে দ্রুত স্থানীয় উমগাঁও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে জানানো হয় নির্যাতিতার অবস্থা আশঙ্কাজনক। সেখান থেকে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় জেলা সদর হাসপাতালে। তবে নির্যাতিতার দৃষ্টিশক্তি সম্পূর্ণ নষ্ট হয়েছে কিনা, তা এখনও নিশ্চিত নয়। 

পুলিশ তদন্তে নেমে এই ঘটনায় ৩জনকে গ্রেফতার করেছে।তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের অনুমান, অভিযুক্তরা সকলেই ওই গ্রামেরই বাসিন্দা।  

সম্প্রতি ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর একটি চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসে। ওই রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৯ সালে দেশে প্রতি ১৬ মিনিট অন্তর একজন মহিলা ধর্ষণের শিকার হন। সময় বয়ে গেছে। কিন্তু পরিস্থিতি যে তিমিরে ছিল, সেখানেই পড়ে রয়েছে তা এদিনের ঘটনায় প্রমাণ।যেখানে ধর্ষকদের হাত থেকে পার পাচ্ছে না মূক ও বধির কিশোরীও

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only