বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২১

অদ্ভুত সীমান্ত,নেই কাঁটাতার



বার্লে,৭ জানুয়ারিঃ সীমান্ত বলতেই বোঝায় কাঁটাতারের বেড়া আর তার দু’পাশে সশস্ত্র সেনাদের টহল। কিন্তু নেদারল্যান্ডস এবং বেলজিয়ামের সীমান্ত শহর বার্লে সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম। ইউরোপের এই দুই দেশের সীমান্তে রয়েছে কেবলমাত্র সাদা ক্রসচিহ্ন। সীমান্তের ওপর থাকা হোটেল,ঘরবাড়ি,রাস্তাঘাট সবকিছুর ওপর দিয়েই বয়ে চলেছে সাদা যোগচিহ্ন। এই চিহ্নের বিশেষত্ব হল বিভাজন নয়, দুই দেশকে সংযুক্ত করা। শুধুমাত্র এই চিহ্নের মাধ্যমেই সবকিছু ভাগ করা হয়েছে। কোথাও কোথাও অবশ্য রাস্তার ধারে লোহার স্ট্যান্ডে রয়েছে দুই দেশের পতাকা। বার্লে শহর অবশ্য দ্বিখণ্ডিত হয়ে দুই দেশে দুই আলাদা নামে পরিচিত। নেদারল্যান্ডস বা ডাচদের দেশে এই শহরের নাম বার্লে-নাসাউ। আবার বেলজিয়ামে একই শহরের নাম বদলে হয়েছে বার্লে-হারটোগ। বেলজিয়ামের ভাগে পড়েছে ২.৮৯ বর্গমাইল এবং নেদারল্যান্ডসে রয়েছে ২৯.৪৬ বর্গমাইল এলাকা।

মধ্যযুগে সই হওয়া বিভিন্ন চুক্তি, ভূমি অধিগ্রহণ বা জমি বেচাকেনার কারণে বার্লে শহরটি ব্রেডা ও ব্রাবান্ট রাজবংশের মধ্যে বিভাজিত হয়। ১৮৪৩ সালে মাসট্রিক্ট চুক্তির বলে শহরটি নতুন রুপ নেয়। ফলে সমগ্র বার্লে শহরজুড়ে দু’টো মিউনিসিপ্যালিটি,দুটো ক্যাথিড্রাল, দু’টো হাসপাতাল এবং দু’টো থানা রয়েছে। নেদারল্যান্ডসের রাজধানী আমস্টারডম থেকে বার্লের দূরত্ব ৭৬ মাইল এবং বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলস থেকে দূরত্ব ৬৫ মাইল। ২০১৮ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী বেলজিয়ামের বার্লের জনসংখ্যা ২৭০৫ এবং ডাচ বার্লের জনসংখ্যা ৬৮০৩। অতিমারি করোনা ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে গতবছর বার্লে সীমান্ত আংশিক বন্ধ রেখেছিল উভয় প্রতিবেশী দেশই। তবে স্বাস্থ্যবিধি ও দূরত্ববিধি বজায় রেখে জরুরি প্রয়োজনে সীমান্ত পারাপার জারি ছিল।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only