মঙ্গলবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২১

'ইউজারদের তথ্য সুরক্ষিত', বিতর্কে ধামা চাপা দিল হোয়াটস অ্যাপ



পুবের কলম ওয়েব ডেস্কঃইউজারদের তথ্য ফাঁস করে দিচ্ছে হোয়াটস অ্যাপ। এই অভিযোগে সরগরম নেটদুনিয়া।যার জেরে অনেকেই জনপ্রিয় এই মেসেজিং অ্যাপ ছেড়ে ব্যবহার করা শুরু করেছেন টেলিগ্রাম এবং সিগন্যাল। বিতর্কের মাঝে অবশেষে মুখ খুলল হোয়াটস অ্যাপ।ইউজারদের স্বস্তি দিতে তারা জানাল, অযথা ভয়ের দরকার নেই। ব্যক্তিগত তথ্য সম্পূর্ণ নিরাপদ। 

নতুন বছর শুরুতেই সমালোচনার মুখে জনপ্রিয় চ্যাটিং অ্যাপ হোয়াটস অ্যাপ। কারণ এই অ্যাপের নতুন প্রাইভেসি পলিসি।সংস্থার তরফে জানানো হয়, ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে অ্যাপটির আপডেটেড ভার্সন ব্যবহার করতে হলে ইউজারদের নতুন পলিসি গ্রহণ করতে হবে। যদি না করেন, তা হলে গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে। গ্রাহকদের ভরসা জোগাতে মঙ্গলবার মুখ খুলল হোয়াটসঅ্যাপ কর্তূপক্ষ। তারা জানিয়েছে, নতুন যে পলিসি আপডেট করেছে তারা, তাতে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত মেসেজকে প্রভাবিত করবে না। গ্রাহকদের আশ্বস্ত করতে টুইট করে সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মটি জানিয়েছে, 'আমাদের নতুন প্রাইভেসি পলিসি আপডেট করেছি।যা নিয়ে একটা গুজব রটছে। তবে আশ্বস্ত করছি, আপনাদের মেসেজ সুরক্ষিত। অযথা আতঙ্কিত হবেন না'।

হোয়াটসঅ্যাপ আরও জানিয়েছে, তারা কিংবা ফেসবুক কেউই ইউজারদের ব্যক্তিগত মেসেজ পড়ছে না কিংবা তাদের কল শুনছে না। কাদের সঙ্গে ইউজাররা যোগাযোগ রাখছেন কিংবা কোন লোকেশনে তাঁরা রয়েছেন, সেই তথ্যও দেখতে পারেনা হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক। গ্রাহকদের ফোন নম্বর ফেসবুকে শেয়ার করে না হোয়াটস অ্যাপ। হোয়াটসঅ্যাপে প্রাইভেট গ্রুপগুলির গোপনীয়তাও সম্পূর্ণ সুরক্ষিত। কোনও মেসেজ সরিয়ে দেওয়ার জন্য ডিসঅ্যাপিয়ার অপশনও বেছে নিতে পারেন গ্রাহকরা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only