মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১

একুশে ভয়ংকর খেলা হবে : অনুব্রত

 


মল্লারপুর, ১৯ জানুয়ারি : "খেলা তো অনেক  রকমের হয়। একুশে ভয়ংকর  খেলা  হবে"। মল্লারপুরে শিব বাড়ির মাঠে ময়ুরেশ্বর 1 ব্লকের সভা শেষে হেঁয়ালি করে ভয়ংকর খেলার  ঈঙ্গিত  দিলেন  অনুব্রত। কিন্তু  কিছুতে কি সে খেলা? সাংবাদিকদের  বার বার প্রশ্নেও খোলসা করলেন না!   এ যেন  কালিদাস পণ্ডিতের হেঁয়ালিকেও হার মানায়! অনুব্রত যেমন হরেক রকম খেলার কথা বলেছেন,  তেমনি আবার বলেছেন ফাউল প্লের আশঙ্কার কথা। তাঁর দলীয়  অনুগামী, সমর্থকরা তালে তালে হাত তালি দিয়ে স্লোগান  তুললেন, "বন্ধু! খেলা  হবে, খেলা  হবে। খেদিয়ে  পগার  পার হবে"।   না,  ভুল  ভাবার কোন কারন নেই, ব্রিসবেনের গাব্বায় অজিদের  328 রানে মুড়ি দেওয়ার 70 বছরের  ভারতীয়  রেকর্ডকেও ছাপিয়ে  আনন্দের বহিঃপ্রকাশ তো নয়ই! ঝেড়ে  না কাশলেও,   

হেঁয়ালি করেই এদিন অনুব্রত শেষ মেশ  বলেন, এখন নয়, ভোটের  খেলা।   খেলা তো অনেক ধরনের। ক‍্যারাম খেলা, ক্রিকেট খেলা, হাডুডু খেলা, ফুটবল  খেলা। ব‍্যাখ‍্যা করে  বলেন, ফুটবল খেলায় পায়ে  লাথি মারা হয়। ক্রিকেটে বল হাঁটুতে লাগলে মালাইচাকি ভাঙতে পারে। হাডুডু খেলায় হ‍্যানা ধরে  টানলে হাত  ভাঙতে  পারে। এভাবেই  সমস্ত রকম  ফাউল প্লের লিস্ট  দেন অনুব্রত। আর  হাসি ও করতালিতে ফেটে পরে  দলীয়  সমর্থকেরা। নির্বাচন বিধি লাগু হওয়ার ফলে  বিগত দিনে এরকম  অনেক  হেঁয়ালি অনুব্রতের মুখে  শোনা  গেছে। এবার  সেটা আগাম  শুনতে  পাচ্ছেন  অনেকেই।

এদিন  বিজেপির রাজ‍্য সভাপতির " মারতে  শুরু  করা" প্রসঙ্গে অনুব্রত বলেন, মারতে  এলে হাতটা থাকবে  তো? গোটা  বক্তব্য জুড়ে  অনুব্রত বলেন, নিরব মোদি কি করে চোদ্দ   হাজার  কোটি  টাকা  নিয়ে  পালালো? আদানি কার আমলে এত ফুলে ফেঁপে উঠলো? মঙ্গলবারের  সভায়  অনুব্রত ছাড়াও  উপস্থিত ছিলেন  সাংসদ অসিত  মাল, দলীয়  জেলা  সহ সভাপতি  অভিজিৎ সিনহা, জেলা সাধারণ  সম্পাদক ত্রিদিব ভট্টাচার্য্য  প্রমুখ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only