শনিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২১

অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনকে ছাড়পত্র , দেশজুড়ে ভ্যাকসিনের ড্রাই রান

 



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ জানুয়ারি­ বছরের শুরুতেই সুখবর। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার মিলিত প্রচেষ্টায় তৈরি কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনকে ছাড়পত্র দিল ভারত সরকার। ড্রাগ রেগুলেটরস সাবজেক্ট কমিটির বিশেষ বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ভারতের পুণেতে অবস্থিত সিরাম ইন্সটিটিউট এই ভ্যাকসিন তৈরি করছে দেশে। সিরাম ইন্সটিটিউট জানিয়েছে, ইতিমধ্যেই ১০০ মিলিয়ন ডোজ তৈরি রয়েছে। আগামী ছয় থেকে আট মাসে ৩০ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রের। তবে ভারত সরকার এখনও সিরাম ইন্সটিটিউটের সঙ্গে ভ্যাকসিন কেনার চুক্তি করেনি। অক্সফোর্ডের এই টিকাটি কেন্দ্রের প্রাথমিক ছাড়পত্র পাওয়ার পর এখন ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার অনুমোদনের অপেক্ষায়। অনুমোদন পাওয়ার সাত থেকে ১০ দিনের মধ্যেই করোনার টিকাকরণ শুরু হবে দেশজুড়ে। এর আগে ডিসেম্বরের ৩০ তারিখ অক্সফোর্ডের তৈরি এই টিকাকে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমোদন দেয় ব্রিটেনের মেডিসিন্স অ্যন্ড হেলথ প্রোডাক্টস রেগুলেটরি অথরিটি। উল্লেখ্য, প্রস্তুতি ঠিকমতো সারা হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে আজ থেকে ভারতজুড়ে ভ্যাকসিনের ড্রাই রান বা ট্রায়াল চালানো হবে। প্রতিটি রাজ্যের রাজধানীতে তিন ধাপে চলবে এই ট্রায়াল। কোভিড ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডকে ভারত ছাড়পত্র দিলেও ভারত বায়োটেক বা ফাইজারের ভ্যাকসিন জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমোদন পায়নি। ফাইজার বা মর্ডানার ভ্যাকসিনের চেয়ে কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনই ভারতে বেশি গ্রহণযোগ্যতা পাচ্ছে তার কারণও রয়েছে। জানা গেছে, অক্সফোর্ডের কোভিশিল্ড ফ্রিজে ২ থেকে ৮ ডিগ্রি তাপমাত্রায় রাখা যায়। অপর পাশে মর্ডানা বা ফাইজারের তৈরি ভ্যাকসিন সুরক্ষিত রাখতে অপেক্ষাকৃত কম তাপমাত্রার প্রয়োজন পড়ে। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only