শুক্রবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

৭ হাজার টাকা কেজি এলাচের দাম তলানিতে

নয়াদিল্লি: একের পর এক সমস্যায় জর্জরিত হয়ে চাহিদা তলানিতে নেমে যেতে পারে ফসলেরও। ছোট এলাচের বাজারেও ঠিক এমনটাই ঘটল। মাস আগে যে এলাচ মহার্ঘ্য ছিল হাজার টাকা কিলো বিক্রি হত এখন নিম্নতম মূল্যেও তার খরিদ্দার পাওয়া সমস্যা হয়ে উঠছে। হোলসেল বাজারে এলাচের দাম ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকার বেশি উঠছেই না। কিন্তু কি কারণে এলাচের দাম তলানিতে! এমনকী কারণে ভারতীয় এলাচের সবচেয়ে বড় খরিদ্দারও মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে।



উল্লেখ্য, ইন্ডিয়ান স্পাইস বোর্ডে রোজই এলাচের নিলামি হয়। এখানে এলাচের রোজকার দর তৈরি করা হয়। কিন্তু চলতি বছরের জানুয়ারির প্রথম থেকে এখনও পর্যন্ত এলাচের দর হাজার টাকা কেজির ওপর উঠছেই না। ন্যূনতম দর উঠছে ১৫২৮ টাকা কিলো পর্যন্ত। কিন্তু এলাচ ব্যবসায়ীদের জন্য সবচেয়ে চেয়ে হতাশার কথা বোর্ডে তিন-চারটি মণ্ডি থেকে আসা এলাচের নিলামি হয়। প্রতিদিন ৪৫ হাজার কেজি থেকে ৬০ হাজার কেজি এলাচির নিলামি হত। কিন্তু কিছুদিন পুরো আনাজই বিকোচ্ছে না।

এলাচি ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ওয়াকিবহাল মহলের বক্তব্য, এলাচের দামে শোচনীয় পতনের কারণ করোনা-লকডাউন এবং মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলিতে এই ফসলের চাহিদা কমে যাওয়া। সেই সময় থেকে আজ পর্যন্ত বাজারে উল্লেখযোগ্য কোনও পরিবর্তন আসেনি। তাছাড়া লকডাউনের কারণে এক্সপোর্টও বন্ধ ছিল।

অন্যদিকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ বিশেষ করে সৌদি আরব যারা ভারতীয় এলাচের সবচেয়ে বড় খরিদ্দারআমদানি প্রায় বন্ধই করে দিয়েছে। এর কারণ হিসেবে এলাচ চাষের ধরনকেই দায়ী করা হচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলির মতে, এলাচ চাষের সময় এমন কিছু জিনিস ব্যবহার করা হচ্ছে যা তারা পছন্দ করছেন না। এছাড়াও ২০১৯-২০ সালে আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনাকেও এলাচের দরে পতনের কারণ মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

 

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only