রবিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

'বিজেপি ক্ষমতা পেলে জীবন্ত দুর্গাদেরও ছাড়বে না' : দেবু টুডু

এস জে আব্বাস, শক্তিগড়: বর্ধমান ২নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে বিজেপির পরিবর্তন যাত্রার পথেই গঙ্গা জল ছিটিয়ে পাল্টা সম্প্রীতি যাত্রা হল শনিবার। এ উপলক্ষে বর্ধমানের আটাঘর থেকে হাটগোবিন্দপুর পর্যন্ত একটি মিছিলে পা মেলান এলাকার কয়েক হাজার কর্মী সমর্থক। এই মিছিল শেষে হাটগোবিন্দপুর বাসস্ট‌্যাণ্ডে পেট্রোল, ডিজেল, রান্নার গ্যাসের দামবৃদ্ধি,  কৃষি আইন বাতিল প্রভৃতির দাবিতে এবং দেবী দুর্গার অপমান ও বাংলার ঐতিহ্যময় সংস্কৃতির উপর আঘাত, ধর্ম নিয়ে নোংরা রাজনীতি, সর্বোপরি দেশের মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি নষ্টের প্রতিবাদে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

উপস্থিত ছিলেন বর্ধমান জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি তথা তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য মুখপাত্র দেবু টুডু, বর্ধমান উত্তরের বিধায়ক নিশীথ কুমার মালিক,  বর্ধমান ২ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শ্যামল দত্ত,  জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ বাগবুল ইসলাম, মেহবুব মণ্ডল,  জেলা সংখ্যালঘু সেলের চেয়ারম্যান ইন্তেখাব আলম, তৃণমূলের জেলা মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস, জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি রাসবিহারী হালদার, পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ পরমেশ্বর কোনার, শক্তিপদ পাল, সনৎ মণ্ডল সহ সৌভিক পান, জাহাঙ্গীর সেখ, মহ মহসিন, শরিফুল মণ্ডল প্রমুখ নেতৃত্ব বৃন্দ।




দেবু টুডু দেবী দুর্গার অপমানের বিষয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন, 'যে দলের সভাপতি মা দুর্গার জন্ম বৃত্তান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলে দেবীকে অপমান করতে পারে, সেই দল ক্ষমতা পেলে আমার জীবন্ত দুর্গা মা-বোনদের কি ছেড়ে দেবে?'  তিনি আর বলেন,' বিজেপি আসলে হিন্দু ধর্মকে ভাগ করতে চাইছে। আমার যে বন্ধুরা নিজেকে হিন্দু বলে গর্ব করেন, ঐ কিয়া হুয়ার দল বিজেপি কিন্তু মনে করে হিন্দু মানে রাজপুত,  হিন্দু মানে উত্তর প্রদেশের ব্রাহ্মণ। অর্থাৎ, হিন্দু মানে শুধু উচ্চ জাত। তাই তো দলিত বলে দেশের রাষ্ট্রপতি রমানাথ কোবিন্দ রাম মন্দিরের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পান না! অতএব, বন্ধু, ভাববার সময় এসেছে। যারা বিজেপি করছেন তারা কাল থেকে আর বিজেপির ঝান্ডা ধরবেন না। আসুন, বিজেপির ভাঁওতা আর ভন্ডামির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে শীঘ্রই দিদির উন্নয়ন যজ্ঞে সামিল হই।'

নিশীথবাবু বলেন, 'আসন্ন নির্বাচনে রাজ্যের মানুষ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তৃতীয়বার ক্ষমতায় আনার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন। এতে বিরোধী দল যে খেলাই খেলতে ডাকবে, আমরা সেই খেলাতেই রাজি। 'শ্যামলবাবু জানান, 'যে পথ দিয়ে বিজেপির পরিবর্তন রথ গেছে, সেই পথকে এদিন স্বতঃস্ফূর্ত জনতা যেভাবে গঙ্গাজল ছিটিয়ে শুদ্ধিকরণ করে দিয়েছেন। ঠিক সে ভাবেই তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পুনঃনির্বাচিত করে সারা রাজ্যকে শুদ্ধিকরণ করবেন।'

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only