রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

ছন্দপতন, আব্বাসকে দেখেই বক্তব্য থামালেন অধীর, ভাইজানের জবাব, 'আমি কারুর তাঁবেদারি করতে আসিনি'

কলকাতা: দুয়ারে বিধানসভা নির্বাচন। আর সে কথা মাথায় রেখে ভোট যুদ্ধের দামাম বেজে উঠেছে। আজ রবিবার বাম, কংগ্রেস, আব্বাস সিদ্দিকি'র দল রাজ্যনীতিতে প্রাসঙ্গিকতা ফিরে পেতে ব্রিগেড সমাবেশ থেকে ফের ঘুরে দাঁড়ানোর বার্তা দিলেন। ব্রিগেডের ইতিহাসে এভাবে ভোটের ময়দানে একাধিক বিরোধী শিবিরের জোটের জনসভা এই প্রথম অনুষ্ঠিত হল।

আজকের ব্রিগেডের অন্যতম চমক আব্বাস সিদ্দিকী একথা হলফ করে বলা যায়। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে সর্বশক্তি দিয়ে বামেদের পাশে থাকার বার্তা দিলেন পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী৷ রবিবার বিগ্রেডে আব্বাস আসতেই চারিদিকে হইচই পড়ে যায়। সেইসময় মঞ্চে বক্তব্য রাখছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। আব্বাসকে দেখেই মঞ্চ ছাড়তে উদ্যোগী হন অধীর। সেই সময় আসরে নেমে পরিস্থিতি সামাল দিলেন ফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু ও বাম নেতা মহম্মদ সেলিম।

তবে আব্বাস সিদ্দিকি মঞ্চ থেকে স্পষ্ট করে দেন, 'কংগ্রেসের প্রতি নমনীয় হবেন না তিনি। তার স্পষ্ট বার্তা, আমি এখানে কারুর তাঁবেদারি করতে আসিনি। বামেদের সঙ্গে আসন রফা হয়ে গিয়েছে। ৩০টি আসন ছাড়া হয়েছে সেই কথাও মঞ্চ থেকেই জানিয়ে দেন তিনি। এদিকে আসন রফা নিয়ে অনড় কংগ্রেস। মুর্শিদাবাদ ও মালদহে আইএসএফ–কে আসন ছাড়তে নারাজ কংগ্রেস।



জোটে ফাটল যে তৈরি হচ্ছে তা আব্বাসে ভাষণের ভঙ্গিতে আরও সামনে এল। বক্তব্যে মাঝখানে একবারও অধীরের নাম শোনা গেল না ফুরফুরা শরীফের পীরজাদার মুখে।

এদিন প্রত্যেকটি লাঞ্চিত, ক্ষুধার্ত মানুষকে আমার শুভেচ্ছা দিয়েই ব্রিগেডের সভামঞ্চ থেকে ভাইজান সাফ জানিয়ে দিলেন, তৃণমূল-বিজেপিকে হারাতে বদ্ধপরিকর তাঁর দল ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট২০২১ মমতাকে জিরো করে আমরা দেখিয়ে দেব বিজেপির বি টিম মমতার দল বাংলা থেকে এদের তাড়াতে হবে বিজেপির কালো হাত ভেঙে দেশ থেকে দূর করে দিতে হবে

এদিন তিনি বলেন, মমতা নারী স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছেন তূণমূল বিজেপির আঁতাতকে দূর করতে হবে বাংলার মানুষ মমতার দুর্নীতির ওপর ক্রুব্ধ আর ভয় পাওয়ার দরকার নেই কারণ এখন ক্ষমতা নির্বাচন কমিশনের হাতে চলে গেছে পিছিয়ে পড়া মানুষের হক বুঝে নিতে হবে নির্বাচনে রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা নেব  এক মাস পর আমরাই ক্ষমতা দখল করবযারা বন্ধুত্ব করতে চান, তাদের জন্য দরজা খোলাবাম প্রার্থীদের সর্বত্র সমর্থন করুনভাগীদারি করতে এসেছি, তোষণ নয় মমতার দাদাগিরিতে কেউ কথা বলতে পারেনাপিছিয়ে পড়াদের অধিকার বুঝে নিতে হবেবাংলায় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব

প্রসঙ্গত, শেষ পর্যন্ত নতুন ইতিহাস তৈরি না হলেও বিজেপি তৃণমূলের বিরুদ্ধে তৃতীয় বিকল্প হিসেবে যৌথভাবে ব্রিগেডের আয়োজন, নিঃসন্দেহেঐতিহাসিকবলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only