মঙ্গলবার, ১৬ মার্চ, ২০২১

দিল্লির বাটলা হাউস মামলা, ফাঁসির সাজা আরিজ খানের

পুবের কলম,  নয়াদিল্লি: ২০০৯ সালের দিল্লির বাটলা হাউস এনকাউন্টার মামলার রায় ঘোষণা করল দিল্লির আদালত। অভিযুক্ত আরিজ খানের ফাঁসির সাজা দিল দিল্লির সাকেত আদালত। দিল্লির পুলিশ অফিসার মোহনচাঁদ শর্মার হত্যার ঘটনাকে বিরলতম ঘটনা বলে আ্যূা দেয় আদালত। গত সপ্তাহে আরিজ খানকে অভিযুক্ত ঘোষণা করা হয় ১৫ মার্চ রায় শোনানোর কথা ছিল। সেই মোতাবেক সোমবার বিকেলে বিচারক সন্দীপ যাদব আরিজ খানের ফাঁসির সাজা ঘোষণা করেন। সেইসঙ্গে ১১ লক্ষ টাকা জরিমানাও করা হয়। জরিমানার টাকা থেকে নিহত পুলিশ অফিসারের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।



এই মামলায় আরিজ খানের আইনজীবী এম এস খান মৃত্যুদণ্ডের বিরোধিতায় বলেন, পুলিশ অফিসার যাদবের হত্যার কোনও পূর্ব পরিকল্পনা ছিল না। কিন্তু সরকার পক্ষের আইনজীবী বলেন, অভিযুক্ত আতঙ্কবাদী সংগঠন ইন্ডিয়ান মুজাহিদীনের সঙ্গে যুক্ত ছিল এবং আইনের একজন রক্ষককে হত্যা করেছে,তাই ফাঁসির সাজা পাওয়া উচিত।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ দিল্লির জামিয়ানগর এলাকায় বাটলা হাউসে পুলিশের সঙ্গে এনকাউন্টার হয় আরিজ খানদের। সেই ঘটনায় আরিজ খানের দুই সহযোগী আতিফ আমিন মুহাম্মদ সাজিদ নিহত হয়। অপরদিকে গুলিতে নিহত হন পুলিশ ইন্সপেক্টর মোহনচাঁদ শর্মা। ঘটনাস্থলে থেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় আরিজ খান শাহজাদ আহমেদ। পরে ধরা পড়ে শাহজাদ। ২০১৩ সালে শাহজাদ আহমেদকে আজীবন কারাবাসের সাজা দেয় আদালত। ২০১৮ সালে ধরা পড়ে আরিজ। পুলিশের দাবিমুজাফফর নগর থেকে দিল্লিতে আসা বি.টেক গ্র্যাজুয়েট আরিজ ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন সংগঠনের সঙ্গে যোগ দেয়। তার বিরুদ্ধে সিরিয়াল বিস্ফোরণেরও অভিযোগ রয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only