বৃহস্পতিবার, ২৫ মার্চ, ২০২১

ফের ৫ অফিসার বদলি কমিশনের

পুবের কলম প্রতিবেদক: রাজ্য সরকারের নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ করপুরকায়স্থকে নিস্ক্রিয় করে রাখার পর বৃহস্পতিবার আরও কিছু আইএএস– আইপিএসকে বদলি করল নির্বাচন কমিশন।  যে দক্ষিণ কলকাতায় মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ি এদিন সেই দক্ষিণ কলকাতার ডিসিপি সুধীর নীলকণ্ঠকে বদলি করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। সেখানে পাঠানো হয়েছে আকাশ মাঘারিয়াকে। অন্যদিকে– যুবনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শক্ত ঘাঁটি ডায়মন্ড হারবারের এসপি অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে বদলি করে সেখানে অরিজিৎ সিংহকে পাঠানো হয়েছে। এডিজি(পশ্চিমাঞ্চল) সঞ্জয় সিংহকে বদলি করে তাঁর জায়গায় পাঠানো হয়েছে রাজেশকুমারকে। ঝাড়গ্রামের জেলাশাসক আয়েশারানিকে সরিয়ে দিয়ে তাঁর জায়গায় পাঠানো হয়েছে জয়েশি দাশগুপ্তকে। এছাড়া কোচবিহারের পুলিশসুপার কান্নানকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে সেখানে পাঠানো হয়েছে দেবাশিস ধরকে। 



এদিন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশনের সচিব রাকেশকুমার। যাদের বদলি করা হল– তাঁদের নির্বাচনের কোনও কাজে যুক্ত করা যাবে না– একথা বলে দেওয়া হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফে। রাজ্যে ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই নির্দেশ বলবত থাকবে। প্রথম দফার ভোটের প্রচারের শেষ দিনে এই নির্দেশ দিন কমিশন। ২৭ মার্চ প্রথম দফার ভোট। এর আগে ভোটের ঘোষণার পরই রাজ্য পুলিশের এডিজি (আইন-শৃঙ্খলা) জাভেদ শামিমকে সরিয়ে দমকলের ডিজি জগমোহনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। এছাড়া রাজ্য পুলিশের ডিজিপি বীরেন্দ্রকে সরিয়ে নীরজনয়নকে দায়িত্বে আনা হয়। নন্দীগ্রামের বিরুলিয়ায় তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পায়ে চোট লাগার পর তাঁর নিরাপত্তা আধিকারিক বিবেক সহায়কেও সরিয়ে দেওয়া হয়। এছাড়া পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক বিভু গোয়েল এবং পুলিশ সুপার প্রবীণ প্রকাশকেও দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। এবার প্রথম দফার মাত্র ৩০ কেন্দ্রের ভোটের আগেই যে হারে প্রশাসনিক কর্তাদের বদলি করা হচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে পরে আরও অনেক বদলি করা হবে।    



 

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only