শুক্রবার, ৫ মার্চ, ২০২১

রাজস্থানে ফের ’অনার কিলিং’, বাবার হাতে খুন মেয়ে

জয়পুর, ৫ মার্চ: একের পর এক নারী নির্যাতনের ঘটনায় খবরের শিরোনামে রাজস্থান। ফের সামনে এল অনার কিলিং- এর ঘটনা। দলিতকে বিয়ে করার অপরাধে মেয়েকে খুন হতে হল তার বাবার হাতে। ঘটনায় খুনের কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্ত বাবা। সমাজ ব্যবস্থার বিকৃত করুণ চিত্র বার বার উঠে আসছে নারী নির্যাতনের মধ্য দিয়ে। রাজস্থানের দৌসা জেলার ঘটনা। ঘটনায় গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে।

জানা গিয়েছে, পরিবারের সম্মান রক্ষার্থে ১৮ বছরের পিঙ্কি সাইনিকে জোর করে বিয়ে দেয় তার বাবা শঙ্কর লাল সাইনি। পরে তিন দিনের জন্য বাড়িতে আসে সে। এরপর পিঙ্কি তার প্রাক্তন প্রেমিক দলিত যুবক রওশান মাহওয়ারের সঙ্গে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে তাকে বিয়ে করেন। থানায় অভিযোগ দায়ের করেন শঙ্কর লাল সাইনি



পিঙ্কি পুলিশের কাছে জানিয়েছিলেন, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি ৫০ বছরের এক ব্যক্তির সঙ্গে তাকে জোর করে বিয়ে দেওয়া হয়। পরে সে তিনদিনের জন্য কোনও রকমে বাড়িতে আসে। গত ২১ ফেব্রুয়ারি রোশন মাহওয়ারে পালিয়ে গিয়ে তারা বিয়ে করে। তারা খুন হতে পারে। তাদের দুজনকে নিরাপত্তা দেওয়া হোক।

পুলিশ সুপার অনিল বেনিওয়াল জানান, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পিঙ্কি ও রোশন দুজনেই একযোগে রাজস্থান হাই কোর্টে নিরাপত্তা  চেয়ে আবেদন করেন। আদালত এই দম্পতির আবেদনে পুলিশকে নির্দেশ দেয়,‘আবেদনকারীদ্বয়ের জীবন ও স্বাধীনতা বিপন্ন। তাদের ইচ্ছানুসারের তাদের একটি নিরাপদ জায়গায় রাখা হোক

এদিকে গত ১ মার্চ পুলিশি ঘেরাটোপে পিঙ্কি নিজ গ্রামে দৌসাতে ফিরে আসেন। সেই দিন থেকেই পিঙ্কি নিখোঁজ। ঘটনার দুদিন পরে রোশন মাহওয়ার স্ত্রীয়ের নিখোঁজ অভিযোগ দায়ের করেন।

গত ৩ মার্চ বুধবার পিঙ্কি সাইনিকে শ্বাসরোধ করে খুনের কথা স্বীকার করে তার বাবা শঙ্কর লাল সাইনি। দম্পতির আইনজীবী এই ঘটনায় গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন। শঙ্কর লাল সাইনিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only