শুক্রবার, ১২ মার্চ, ২০২১

ধর্মস্থান আইন বদলে, কেন্দ্রকে সুপ্রিম নোটিশ

পুবের কলম, নয়াদিল্লি: ১৯৯১ সালের ধর্মস্থান আইনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে যে জনস্বার্থ মামলা করা হয়েছে তাতে সাড়া দিয়ে শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্রকে নোটিশ দিল। ১৯৯১ সালের এই আইন করা হয়েছিল পিভি নরসিংহ রাও প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন। সেই সময় বিশ্ব হিন্দু পরিষদ দেশের প্রায় ৩০০০ মসজিদ আগে মন্দির ছিল বলে দখল চায়। তখনও বাবরি মসজিদ ভাঙা হয়নি। তাই এই আইন করে বলা হয়েছিল১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্টে বিভিন্ন ধর্মস্থানের যা অবস্থান ছিল তা আর বদলানো যাবে না। এখন সেই আইনকেই বদলাতে জনস্বার্থ মামলা করেছেন বিজেপি-ঘনিষ্ঠ অশ্বিনী উপাধ্যায়। তাতে সাড়া দিয়ে প্রধান বিচারপতি এস বোবদের নেতৃত্বাধীন এক বেঞ্চ বলেছেকেন্দ্র কী চায় তা জানাক। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকআইনমন্ত্রক এবং সংস্কৃতিমন্ত্রকের জবাব চেয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ।



আবেদনকারী উপাধ্যায় তাঁর আবেদনে বলেছেন– ‘১৯৯১ সালে এই আইন করে একটা খামখেয়ালিঅন্যায্য তারিখকে ভিত্তি হিসেবে ধরেছে। বলা হয়েছে ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট যেখানে যে ধর্মস্থান ছিলতা তেমনই থাকবে। এটা যুক্তিহীন। এই আইন হিন্দুবৌদ্ধ এবং জৈনদের বহু ধর্মস্থানকে বঞ্চিত করছে। ব্রিটিশ এবং মুঘল আমলে যেসব মন্দিরদখলকরা হয়েছিলতা আর পুনরুদ্ধার করা যাবে না।আবেদনে আরও বলা হয়েছে– ‘যারা বিদেশ থেকে এসে দেশে দখলদারি কায়েম করেছিল তাদের সম্পর্কে সার্বভৌম আইন খাটে না। সার্বভৌম আইন সেইসব মানুষের জন্য প্রযোজ্য যারা এক সংবিধানের আওতায় ঐক্যবদ্ধ।আবেদনে আরও বলা হয়েছেসুপ্রিম কোর্ট ধর্মস্থান আইনের ধারা বাতিল করুক। 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only