মঙ্গলবার, ১৬ মার্চ, ২০২১

পানীয় জলে বিষক্রিয়ায় মৃত্যুর ঘটনায় চাঞল্য

পুবের কলম প্রতিবেদক:  সোমবারেই মারা গিয়েছিলেন এক পুরকর্মী। ফের মঙ্গলবারও মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ল এক শিশু। অভিযোগ, পানীয় জলে বিষক্রিয়ার ফলেই সে মারা গিয়েছে। যদিও হাসপাতাল সূত্রে খবর, শিশুটি ডায়ারিয়া সংক্রান্ত কারণে মারা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, মৃত শিশুটির নাম আয়ুষী কুমারী। ভবানীপুর এলাকারই বাসিন্দা। তার পরিবারের দাবি, দূষিত জল খেয়েই অসুস্থ হয় সে। তারপর শিশু সদনে চিকিৎসাধীন ছিল।এদিন মারা যায়। অন্যদিকে কলকাতার ৭৪ নম্বর ওয়ার্ডে আলিপুর জেলের মধ্যেও একজনের মৃতু্য হয়। সেখানেও পানীয় জলে বিষক্রিয়ার অভিযোগ উঠেছে।



স্থানীয়রা জানাচ্ছেন, শিবরাত্রির দিন থেকেই এই ঘটনার সূত্রপাত। সেদিন পুরনিগমের সরবরাহকৃত জলেই ভোগ রান্না হয়েছিল। সেই ভোগ খেয়ে পরের দিন অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। অসুস্থদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কেউ কেউ বাড়িতেই চিকিৎসা করেছেন। সকলেরই বমি ও পেট খারাপের অসুখ হয়েছিল।

এদিকে ঘটনার প্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করেছে কলকাতা পুরনিগম। পুরনিগমের সরবরাহ করা পানীয় জল সুরক্ষিত কিনাতা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতা পুরনিগমের প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে গিয়েছেন পুর-আধিকারিকরা। তাঁরা পানীয় জলের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠিয়েছেন। মানুষের যাতে সমস্যা না হয় তা খতিয়ে দেখার আশ্বাসও দিয়েছে পুরনিগম।

অন্যদিকে মোট মৃতের সংখ্যা ৩ জন হয়ে যাওয়ায় বিকল্প ব্যবস্থা নিয়েছে কলকাতা পুরনিগম। পুর-কর্তৃপক্ষ পাইপের জল ব্যবহার করতে না করে দিয়েছে। সমস্যা নিরসনে পাইপজলাধার ইত্যাদি  পরিষ্কারের কাজও শুরু করা হয়েছে। আতঙ্ক কাটাতে সরকারিভাবে বাড়ি-বাড়ি পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করেছে কলকাতা পুরনিগম।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only